এর আগে কোনও ভারতীয় দল দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে একদিনের সিরিজ জিতে ফিরতে পারেনি। এদিন টি২০ সিরিজ জিতলে ডবল ধামাকা হবে। ফলে এক ঐতিহাসিক মাহেন্দ্রক্ষণের সামনে দাঁড়িয়ে কোহলি অ্যান্ড ব্রিগেড। একদিকে দক্ষিণ আফ্রিকা টেস্ট সিরিজ জিতলেও একদিনের সিরিজে ভারত সম্পূর্ণ কর্তৃত্ব দেখিয়েছে। ২-১ সিরিজ হারার পরে ভারত ৫-১ ব্যবধানে একদিনের সিরিজ জিতেছে। এবার দুই দলের সামনেই সুযোগ রয়েছে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জেতার। কেপটাউন ভারতের কাছে পয়া মাঠ। এখানে সীমিত ওভারের ক্রিকেটে ৮টি ম্যাচ খেলে ৬টি জিতেছে ভারত। এদিন ম্যাচ জিততে গেলে রোহিত শর্মা ও শিখর ধাওয়ান জুটিকে শুরুতেই উইকেট দিলে চলবে না। অন্তত একটি অর্ধশতরানের পার্টনারশিপ গড়তে হবে। তারপরে বিরাট কোহলি ও ধোনি সহ বাকীরা এসে বাকীটা সামলাবেন। রোহিতের দক্ষিণ আফ্রিকা সফর খুব বাজে গিয়েছে। শেষম্যাচে হিটম্যান ধামাকা দিতে পারেন কিনা তা দেখার বিষয়। শিখর ধাওয়ান ভালো খেলছেন। তিনি ফের জ্বলে উঠলে কোহলি নিশ্চিন্ত হবেন। এদিকে সুরেশ রায়নার কাছে এদিন শেষ সুযোগ টি২০ দলে নিজের জায়গা পাকা করার। একটি অর্ধশতরান রায়নার ব্যাট থেকে বেরলে ভারত ব্যাটিংয়ে এগিয়ে থাকবে। মিডল অর্ডারে কোহলি ধামাকা হলে বাকীদের কিছু না করলেও চলবে। মনীশ পাণ্ডে ও ধোনি আগের ম্যাচে ভালো খেলেছেন। এদের দুজনের সঙ্গে হার্দিক পান্ডিয়া জ্বলে উঠলে স্লগ ওভারে ভারত বেশি রান তুলতেই পারে। বোলিংয়ে শেষ ম্যাচে এসে ভাবনার জায়গা তৈরি হয়েছে। বিশেষ করে যুজবেন্দ্র চাহালকে যেভাবে হেনরিক ক্লাসেন সেঞ্চুরিয়নে বলে বলে ছক্কা হাঁকিয়েছেন তাতে চাহালের মনের অবস্থা বোঝাই যাচ্ছে। তবে গোটা সিরিজে চাহাল ভালো বল করেছেন। সেক্ষেত্রে তাঁকে আর একটি সুযোগ কোহলি নিশ্চয়ই দিতে চাইবেন। পেস বোলিংয়ে ভুবনেশ্বর কুমার বরাবরের মতো ভালো ছন্দে রয়েছেন। বাকী জসপ্রীত বুমরাহ ও শার্দুল ঠাকুর ও পান্ডিয়া কীভাবে তাকে সঙ্গ দেন সেটাই দেখার।

পান মাইখেল-এর ব্রেকিং নিউজ অ্যালার্ট

Allow Notifications

You have already subscribed

Source link

Comments

comments