গোবিন্দর বাড়িতে বাসন মাজতেন কোটিপতির মেয়ে

 
প্রকাশিত: 07/27/2021 at 10:34 am

সিনেমায় পরিচয় ভাঁড়িয়ে প্রেমিক কিংবা প্রেমিকার মন পেতে কোটিপতির সন্তানদের বাসন মাজা কিংবা গাড়িচালকের কাজ নেওয়ার গল্প তো অনেক দেখেছেন। বলিউড তারকা গোবিন্দ ‘হিরো নাম্বার ওয়ান’ সিনেমায় কোটিপতি বাবার ছেলে হয়েও কারিশিমা কাপুরের মন পেতে কাজ নিয়েছিলেন তার বাড়িতে।

কিন্তু সিনেমার গল্প নয়, বাস্তবেই গোবিন্দর জীবনে এসেছিলেন এক কোটিপতির মেয়ে, যিনি গোবিন্দকে ভালোবাসে তার বাড়িতে বাসন মাজার কাজ নিয়েছিলেন।

ওই নারীর নামপরিচয় কখনো প্রকাশ করেননি গোবিন্দ কিংবা তার স্ত্রী সুনীতা।তবে এক সাক্ষাৎকারে ঘটনাটি স্বীকার করে নিয়েছিলেন।

অভিনয়, নাচ সব মিলিয়ে বলিউডে তখন জনপ্রিয় নায়ক হয়েছিলেন গোবিন্দ। অসংখ্য ভক্ত ছিল তার। গোবিন্দর সেই গুণমুক্ত একজন ছিলেন ওই নারী। গোবিন্দকে বিয়ে করতে চেয়েছিলেন। তবে বলিউডে জনপ্রিয়তা পাওয়ার অনেক আগে ১৯৮৭ সালে গোবিন্দর বিয়ে হয়ে গিয়েছিল।

যদিও গোবিন্দর বিবাহিত হওয়ার খবর তখনও বলিউডের কেউই জানতেন না। ক্যারিয়ারের স্বার্থেই এই খবর লুকিয়ে রেখেছিলেন গোবিন্দ। তা নিয়ে তার স্ত্রীরও কোনো আপত্তি ছিল না।

গোবিন্দর বিবাহিত হওয়ার খবর ওই নারীও জানতেন না। তিনি গোবিন্দর বাড়ির ঠিকানা জোগাড় করে চলে যান। নিজেকে তিনি পরিচারিকা হিসেবে পরিচয় দিয়েছিলেন। গোবিন্দ এবং তার মায়ের কাছে নিজের অসহায়তার কথা বলে পরিচারিকার কাজ পান।

ওই নারী গোবিন্দর বাড়িতে বাসন মাজার কাজ পেয়েছিলেন। গোবিন্দর প্রেমে এই কাজও মুখ বুজে করছিলেন তিনি।তবে তার কাজ গোবিন্দর মায়ের একদম পছন্দ হচ্ছিল না। আসলে তিনি ঠিকমতো বাসন মাজতে পারতেন না।

একদিন কোটিপতি বাবার সাথে মেয়েটির কথোপকথন গোবিন্দর স্ত্রী সুনীতা শুনে ফেলেন। কথা শুনে সুনীতার সন্দেহ হলে গোবিন্দকে সব জানান তিনি।

পরে গোবিন্দ মেয়েটির সাথে কথা বলে আসল বিষয়টি জানতে পারেন। মেয়েটির বাবার সাথে যোগাযোগ করে বাড়ি পাঠিয়ে দেন তাকে।

মেয়েটির বাবা বড় ব্যবসায়ী ছিলেন। মেয়েটি ভেবেছিলেন পরিচারিকা হয়ে ঢুকে গোবিন্দর সঙ্গে বন্ধুত্ব পাতিয়ে তারপর তাকে নিজের প্রকৃত পরিচয় দিয়ে প্রেম প্রস্তাব দেবেন। তবে গোবিন্দ বিবাহিত জানতে পেরে আঘাত পেয়েছিলেন তিনি।

 

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন । আজই পাঠিয়ে দিন - write@sarabangla.in