টমেটো জুসে এতো উপকার!

 
প্রকাশিত: 07/13/2021 at 12:20 pm

টমেটো আমাদের প্রায় সবারই প্রিয় এক সবজি। সালাদ, ফাস্টফুডের সঙ্গে, তরকারি হিসেবে সব কিছুতেই এই টমেটো ভিন্ন স্বাদ যোগ করে। এটি খুব স্বাস্থ্যকরও। আপনি কি জানেন টমেটো জুস শরীরের জন্য কতোটা উপকারী? হ্যাঁ, এখন অনেকেই শরীর ফিট রাখতে টমেটো জুস পান করেন। এক গবেষণায় জানা গেছে, তাজা টমেটোর চেয়ে টমেটো জুস স্বাস্থ্যের জন্য আরো উপকারী।

কোলেস্টেরল কমায়: টমেটো জুসে থার্টিন-ওক্সো- ওডিএ উপাদান পাওয়া যায়, যা শরীরের উচ্চ কোলেস্টেরল কমায়। উচ্চ কোলেস্টেরল হৃদরোগ, স্ট্রোক সহ শরীরের বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধ করে। তাই টমেটো জুস পান করলে কোলেস্টেরলের কারণে তৈরি হওয়া শরীরের জটিল রোগ প্রতিরোধ হয়।

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করে: যাদের ওজন বেশি, তাদের ডায়াবেটিসে ভোগার ঝুঁকি থাকে বেশি। টমেটো জুস কোলেস্টেরলের পাশাপাশি ব্লাড সুগারও নিয়ন্ত্রণ করে। এতে করে ডায়াবেটিস প্রতিরোধ হয় ও নিয়ন্ত্রণে থাকে।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়: টমেটো জুসে লাইকোপেন ও বিটা ক্যারোটিনের মতো ক্যারোটিনয়েড উপাদান থাকে, যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

ক্যানসার প্রতিরোধ করে: এক গবেষণায় দেখা গেছে, আমেরিকায় টমেটো ও এর জুস থেকে ৮০ শতাংশ লাইকোপেন পাওয়া যায়। এই উপাদান ফুসফুস, পাকস্থলী, স্তন ও প্রোস্টেট ক্যানসার প্রতিরোধ করে। লাইকোপেন খুব শক্তিশালী অ্যান্টি অক্সিডেন্ট, যা শরীরের ফ্রি র‌্যাডিকেল শরীর থেকে দূর করে ক্যানসারের ঝুঁকি কমায়।

হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়: টমেটো জুসে থাকা লাইকোপেন, ভিটামিন সি, ফেনোলিক এসিড হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়।

ওজন কমায়: এক গবেষণায় দেখা গেছে, টমেটো জুস পান করলে শরীরের ওজন কমে। এই জুসে ক্যালরির পরিমাণও কম থাকে।

হতাশা ও মানসিক চাপ কমায়: টমেটো জুসে প্রচুর লাইকোপেন ও গামা এমিনোবিউটোরিক এসিড থাকে। এই দুটি উপাদান মানুষের হতাশা, মানসিক চাপ, মুড সুইংয়ের সমস্যা কমায়। টমেটো জুস তাই অনেক মানসিক সমস্যা দূর করে বলেই গবেষণায় জানা গেছে।

শরীরে পানির পরিমাণ বাড়ায়: শরীরের ইলেকট্রোলাইটের পরিমাণ ঠিক রাখতে পানি পান করতে হয় বেশি। টমেটো জুসে প্রচুর পানি থাকে, যা শরীরের পানি স্বল্পতার মতো সমস্যা দূর করে।

হাড়ের রোগ দূর করে: এক গবেষণায় দেখা গেছে, টমেটো জুস হাড় মজবুত রেখে অস্টিওপোরোসিসের মতো রোগ প্রতিরোধ করে।

বয়সের ছাপ দূর করে: বয়স বাড়ার সাথে সাথে দেহকোষ নষ্ট হয়ে আমাদের মুখে ও ত্বকে ভাঁজ পড়ে। টমেটো জুসে থাকা ক্যারোটিনয়েড দেহকোষ ভালো রেখে বয়সের ছাপ দূর করে। ব্রণ, ত্বকের শুষ্কতা সহ এ ধরনের সমস্যাও দূর করে টমেটো জুস।

যেভাবে টমেটো জুস তৈরি করবেন

২- ৩টি তাজা টমেটো নিন। এক চিমটি লবণ ও ২০০ মিলিলিটারের মতো গরম পানিও নিন। একটি পাত্রে টমেটোগুলো নিয়ে তাতে গরম পানি ঢেলে দিন। এরপর টমেটোগুলো ভালো করে পরিষ্কার করুন। এতে করে টমেটোর খোসা উঠে আসবে। এবার টমেটোগুলো তুলে খোসা ছাড়িয়ে নিয়ে সেগুলো টুকরো টুকরো করুন। এরপর ব্লেন্ডারে দিয়ে জুস তৈরি করুন। ওই দ্রবণটা ছেঁকে নিয়ে একটি গ্লাসে ঢালুন। এরপর তাতে লবণ মিশিয়ে পান করুন। ভিন্ন স্বাদ পেতে এর সঙ্গে একটু লেবুর রস ও একটু চিনি মিশিয়ে নিতে পারেন।

বাজারে টমেটো জুস পাওয়া যায়। তবে ঘরে এই জুস তৈরি করে নেয়া সবচেয়ে স্বাস্থ্যকর।

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন । আজই পাঠিয়ে দিন - write@sarabangla.in