সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, দুর্গাপুর: নির্বাচনের আগে (Assembly Election 2021) ফের শুটআউটের ঘটনা ঘটল বাংলায়। বাড়ি ফেরার পথে গুলিবিদ্ধ হলেন পশ্চিম বর্ধমানের দু্র্গাপুরের এক তৃণমূল কর্মী। বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওই ব্যক্তি। তৃণমূলের অভিযোগ, ঘটনায় যোগ রয়েছে বিজেপির (BJP)।
জানা গিয়েছে, দুর্গাপুরের (Durgapur) বাসিন্দা ওই তৃণমূল কর্মীর নাম লক্ষ্মণ কেয়ট। মঙ্গলবার রাতে বাইকে দলীয় কার্যালয় থেকে বাড়ির দিকে যাচ্ছিলেন তিনি। সেই সময় সিঁদুলি এলাকায় একটি বাইক তাঁর পিছু নেয়। অভিযোগ, সেই বাইকে থাকা দুই যুবক আচমকা লক্ষ্মণকে লক্ষ্য করে এলোপাথাড়ি গুলি চালাতে শুরু করে। গুলি ও ওই তৃণমূল কর্মীর আর্তনাদের শব্দ কানে যেতেই বাইরে বেরিয়ে আসেন স্থানীয়রা। তখনই দ্রুতগতিতে বাইক চালিয়ে এলাকা ছাড়ে অভিযুক্তরা। এরপর স্থানীয়দের তৎপরতায় গুলিবিদ্ধ তৃণমূল কর্মীকে ভরতি করা হয় হাসপাতালে। বর্তমানে দুর্গাপুরের বিধাননগরের একটি হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে তাঁর। সূত্রের খবর, তাঁর পিঠে গুলি লেগেছে। ইতিমধ্যেই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে অণ্ডাল থানার পুলিশ।
[আরও পড়ুন: উদ্বেগ বাড়াচ্ছে সেই কলকাতা-উত্তর ২৪ পরগনা, ফের ঊর্ধ্বমুখী রাজ্যের কোভিড গ্রাফ]
কেন এই হামলা? তৃণমূলের অভিযোগ, তাঁদের দলের সক্রিয় কর্মী হওয়ার কারণেই বিজেপি হামলা চালিয়েছে লক্ষ্মণের উপর। পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, রাজনৈতিক কারণেই এই হামলা নাকি নেপথ্যে অন্য কোনও রহস্য রয়েছে, তা জানার চেষ্টা করা হচ্ছে। লক্ষ্মণের সঙ্গে কারও কোনও শত্রুতা ছিল কি না, তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। উল্লখ্য, চলতি মাসের ৬ তারিখে বাইকে বাড়ি যাওয়ার সময় বীরভূমের বড়শালের পঞ্চায়েতের তৃণমূলের উপ-প্রধানের ভাইকে গুলি করে খুন করা হয়। সেই ঘটনাতেও নাম জড়িয়েছিল বিজেপির। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছিল তাঁরা।
[আরও পড়ুন: নজরে এবার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি, ফের রাজ্য সফরে ডেপুটি নির্বাচন কমিশনার]

Source link

Comments

comments