পঞ্চম শ্রেণির বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়

 
প্রকাশিত: 07/12/2021 at 11:05 am

সিনিয়র শিক্ষক, উত্তরা হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজ উত্তরা, ঢাকা

জনসংখ্যা

প্রশ্ন : সমাজের উপর অধিক জনসংখ্যার

তিনটি প্রভাব উল্লেখ কর।

উত্তর : সমাজের উপর অধিক জনসংখ্যার তিনটি প্রভাব নিচে দেওয়া হলো-

শিক্ষা : আমাদের সমাজের অগ্রগতিতে শিক্ষা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের মোট জনসংখ্যার ৩৫ শতাংশ এখনো অক্ষরজ্ঞানহীন। এর একটি কারণ হলো দরিদ্র মা-বাবা তাদের সন্তানদের বিদ্যালয়ে পাঠাতে পারেন না। এমনকি বিদ্যালয়ে ভর্তি হলেও অনেক শিশু পরিবারকে কাজে সাহায্য করতে গিয়ে লেখাপড়া শেষ না করে ঝরে পড়ে।

স্বাস্থ্য : আমাদের দেশে প্রতি ৪০৪৩ জনের জন্য একজন প্রশিক্ষিত চিকিৎসক থাকার কথা। সঠিক চিকিৎসার অভাবে স্বাস্থ্যহীন হয়ে পড়ার কারণে উপার্জন করে জাতীয় অর্থনীতিতে কোনো অবদান রাখতে পারছে না ও তারা সমাজের বোঝায় পরিণত হয়।

পরিবেশ : অধিক জনসংখ্যার সবচেয়ে মারাত্মক প্রভাব পড়েছে পরিবেশের ওপর। মানুষজন বন, গাছপালা কেটে প্রাকৃতিক পরিবেশ নষ্ট করছে। অধিক ফসল ফলাতে গিয়ে জমিতে প্রচুর রাসায়নিক সার ও কীটনাশক ব্যবহার করা হচ্ছে। এতে, বায়ু, মাটি, পুকুর ও নদীর পানি দূষিত হচ্ছে। ভূ-গর্ভের পানি উত্তোলনের কারণে সামগ্রিকভাবে আমাদের পরিবেশ ও জলবায়ুর ওপর ক্ষতিকর প্রভাব পড়ছে।

সুতরাং, সমাজে শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও পরিবেশের ওপর অধিক সংখ্যার প্রভাব ব্যাপক।

প্রশ্ন : অধিক খাদ্য উৎপাদনের মাধ্যমে আমাদের দেশের জনগণ কীভাবে উপকৃত হতে পারে?

উত্তর : বাংলাদেশ কৃষিপ্রধান দেশ। ধান এদেশের প্রধান ফসল। কিন্তু বাংলাদেশের জনসংখ্যা অধিক। তাই কৃষিপ্রধান দেশ হয়েও এদেশে খাদ্য সংকট ছিল। প্রতি বছর প্রায় ২৫ লাখ টন খাদ্য ঘাটতি ছিল। কিন্তু বর্তমান সরকার নানাভাবে এই খাদ্য ঘাটতি পূরণে সক্ষম হয়েছে। যেখানে খাদ্য ঘাটতি পূরণের জন্য বাংলাদেশকে প্রতি বছর বিদেশ থেকে খাদ্য আমদানি করতে হতো সেখানে বর্তমান সরকারের সঠিক পদক্ষেপে বাংলাদেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েছে। সবার জন্য আমরা খাদ্য উৎপাদন করতে সক্ষম হয়েছি।

সরকার নানা বৈজ্ঞানিক পদ্ধতি ও কারিগরি শিক্ষা ও প্রযুক্তি প্রয়োগ করে নানাভাবে খাদ্য উৎপাদন বাড়িয়েছে। ফলে দেশের সব লোকের প্রধান মৌলিক চাহিদা তথা খাদ্যের চাহিদা পূরণ হয়েছে। ফলে দেশের মানুষের পুষ্টিহীনতা দূর হবে। স্বাস্থ্যহানি ঘটবে না। দেশের কোনো লোক না খেয়ে অর্ধাহারে, অনাহারে দিন কাটাবে না। ফলে অনেক সামাজিক অপরাধ ও দারিদ্র্য অনেকটাই কমে আসবে। সমাজের, রাষ্ট্রের জনগণ শান্তিতে থাকবে।

সুতরাং, অধিক খাদ্য উৎপাদনের মাধ্যমে আমাদের দেশের জনগণ নানাভাবে উপকৃত হবে

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন । আজই পাঠিয়ে দিন - write@sarabangla.in