দিব্যেন্দু মজুমদার, হুগলি: দলীয় কর্মসূচী উপলক্ষে পান্ডুয়া গিয়েছিলেন হুগলির বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়। সেখানে গিয়ে দলীয় কর্মীদের অনুরোধ রাখতে না পারায় শেষ পর্যন্ত তাঁদের একাংশের বিক্ষোভের মুখে পড়লেন তিনি। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে চলল রাস্তা অবরোধও। পরে পুলিশের মধ্যস্থতায় অবরোধ উঠে যায়। নিয়ন্ত্রণে আসে পরিস্থিতি।
স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গত সপ্তাহে সিঙ্গুর থেকে ‘শুনুন চাষীভাই’ কর্মসূচী পালনের পর জনসংযোগ যাত্রা শুরু ‌করেছিলেন লকেট। মঙ্গলবার বলাগড়ের সোমরায় আদিবাসীদের সঙ্গে জনসংযোগ কর্মসূচী পালনের পর খামারগাছি হয়ে পান্ডুয়ার পাঁচগড়ায় একটি কর্মী বৈঠকে যোগ দিতে যান। সেই সময় পাঁচগড়ায় হাজির ছিলেন অসংখ্য বিজেপি কর্মী ও সমর্থকরা। বৈঠক শেষে বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা দাবি করতে থাকেন সাংসদকে স্থানীয় কালী মন্দিরে পুজো দিতে যাওয়ার জন্য। কিন্তু অন্য জায়গায় আগে থেকে কর্মসূচী থাকার জন্য তাঁদের কথা রাখতে পারেননি সাংসদ। এতেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন ওই এলাকায় জড়ো হওয়া বিজেপি কর্মী-সমর্থকদের একাংশ। সাংসদের গাড়ি আটকে রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন। কিছুক্ষণ বিক্ষোভ চলার পর পান্ডুয়া থানার পুলিশ এসে বিক্ষোভকারীদের সরিয়ে দিয়ে লকেট চট্টোপাধ্যায়কে এগিয়ে যেতে সাহায্য করেন।
[আরও পড়ুন: ‘মিথ্যা প্রতিশ্রুতি, ভাঁওতাবাজি’, কর্মসংস্থান নিয়ে একযোগে মমতাকে কটাক্ষ বাম-কংগ্রেসের]
বিজেপির অভিযোগ, আগে থেকেই লকেট চট্টোপাধ্যায়ের ওই এলাকায় থাকা মতুয়া সম্প্রদায়ের একটি আশ্রমে পুজো দিতে যাওয়ার কথা ছিল। মঙ্গলবার সাংসদ পান্ডুয়া যাওয়ার পর সেই কথা শুনে অন্য একটি কালী মন্দিরে যাওয়ার আবেদন জানায় কিছু মানুষ। আসলে ইচ্ছা করে গন্ডগোল বাঁধানোর জন্য তাদের উসকানি দিয়েছে বিরোধীরা। না হলে ওনাদের যদি লকেট চট্টোপাধ্যায়কে নিজেদের পুজোয় নিয়ে যাওয়ার কথা মনে হত তাহলে আগে থেকে জানাত। কিন্তু, সেসব কিছু না করেই অযথা গন্ডগোল করার চেষ্টা করে।
এপ্রসঙ্গে হুগলি সাংগঠনিক জেলার বিজেপি সভাপতি গৌতম চট্টোপাধ্যায় বলেন, সারাদিন নানা কর্মসূচি ছিল। সারাক্ষণই কর্মীদের নিয়ে বৈঠক করেছেন মাননীয় সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়। কিন্তু, বিরোধীরা ষড়যন্ত্র করে ওনার গাড়ি আটকানোর চেষ্টা করেছিল। আমাদের আগে থেকে বলা থাকায় পান্ডুয়ার মতুয়া আশ্রমে পুজো দিতে গিয়েছিলেন দিদি। কিন্তু, আচমকা কিছু মানুষ অন্য একটা কালী মন্দিরে যাওয়ার জন্য জোরাজুরি করতে থাকেন। সময়ের অভাব থাকায় তা হয়ে ওঠেনি। আমাদের ধারণা, বিরোধীরা আমাদের হেনস্তা করার জন্যই এই ধরনের চক্রান্ত করেছে।’
[আরও পড়ুন: ‘শুভেন্দুর পদক্ষেপের অপেক্ষায়’, প্রাক্তন মন্ত্রীর সঙ্গে থাকার বার্তা দিয়ে পদত্যাগ তৃণমূল নেতার]
দেখুন ভিডিও:
sent Today at 21:36

Source link

Comments

comments