সারাবিশ্বে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে ভয়ঙ্কর করোনা ভাইরাস। এর আক্রান্তের তালিকায় বিশ্বের উন্নত দেশগুলির নাম সবার আগে। করোনার আক্রমন হতে বাঁচতে পারছেননা বিশ্বের প্রভাবশালীরাও। কানাডার প্রধানমন্ত্রীর স্ত্রীও আজ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত। ইটালির সকল জনগনকে রাখা হয়েছে হোম কোয়ারেন্টাইনে। বিশ্ব আজ থমকে গেছে। শুরুতে বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস আক্রান্তের খবর প্রকাশ না পেলেও এখন পর্যন্ত আক্রান্তের পরিমান সরকারি হিসাবে ১৪ জন ছাড়িয়েছে। পুরো বাংলাদেশ জুড়ে আনুমানিক ১৪০০ জনকে রাখা হয়েছে হোম কোয়ারেন্টাইনে। এ পর্যন্ত মারা গেছে ১ জন।

এদিকে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রয়েছেন হোম কোয়ারেন্টাইনে, এমন একটি খবর ছড়িয়ে পড়েছে ওপার বাংলার সবখানে। আমাদের বাংলাদেশের সংবাদদাতা জানান, বাংলাদেশের সাধারন মানুষের মুখে মুখে এই গুঞ্জনটাই ছড়িয়ে পড়ছে যে শেখ হাসিনা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত।  তবে বেশ কয়েকজন এ খবরটিকে স্রেফ গুজব । সাধারন মানুষ বলছে, প্রধানমন্ত্রী নিজে আক্রান্ত তাই জনগনের কথা তিনি ভাবছেননা। আবার অনেকে বলছেন খবরটি উড়িয়ে দেয়া যায়না। প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রের বিভিন্ন প্রয়োজনে দেশে বিদেশে ঘুরে বেড়ান। শুধু প্রধানমন্ত্রী নন সরকারের বাকি এমপি মন্ত্রীরাও এ ভাইরাসে আক্রান্তের সম্ভাবনা থেকে বাদ যায়না। তাই গোটা মন্ত্রী পরিষদকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দেন কেউ কেউ। তবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত খবরটি সম্পূর্ণ গুজব ।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশে করোনা ভাইরাসের রুগী সনাক্তের পরও সেদেশের প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর হতে সাধারন মানুষের জন্য কোন সহায়তার নির্দেশনা আসে নি। অন্যদিকে করোনা রোগী পাওয়া যাবার খবরে বাংলাদেশের সর্বত্র হ্যান্ড সেনিটাইজার ও মাস্কের দাম বেড়ে আকাশ ধরেছে। যা সাধারন মানুষের নাগালের বাইরে।

Comments

comments