বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) পঞ্চম আসরের শুরু দিনই ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ঢাকাকে হারিয়ে চমক দেখিয়েছিল নাসির হোসেনের নেতৃত্বাধীন সিলেট সিক্সার্স। এরপর তাদের জয়রথ ছুটেই চলছিল। বিপিএলে টানা তিন জয় নিয়ে বেশ ফুরফুরে মেজাজেই চতুর্থ ম্যাচে খুলনা টাইটান্সের বিপক্ষে মাঠে নেমেছিল তারা। তবে তাদের জয়রথকে থামিয়ে দিল মাহমুদুল্লাহর খুলনা।

১৩৫ রানের ছোট লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে বেশ ভালোই বেগ পেতে হয় খুলনা টাইটান্সকে। তাইজুল ঘূর্ণিতে বেশ ভালোই বিপাকে পড়েছিল দলটি। তবে বিপদ কাটিয়ে ১২ বল হাতে থাকতেই ৬ উইকেটের জয় তুলে নেয় খুলনা।

খুলনা শিবিরে প্রথমেই তাইজুল ঝড় বয়ে যায়। তাইজুলের স্পিনবিষেই বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে খুলনা। তাইজুল দ্বিতীয় ইনিংসের তৃতীয় ওভারে দলীয় ১৮ রানেই নাজমুল হাসান শান্তকে ফেরান। একই ওভারের পঞ্চম বলেই ফেরান ওয়াল্টনকে। এরপর সপ্তম ওভারে বলে এসেই ১৯ রান করা রুশোর উইকেটটিও তুলে নেন তাইজুল।

তবে খুলনার ব্যাটসম্যানদের এমন ব্যর্থতার মাঝেও জয়ের পথে এগিয়ে নিয়ে যেতে বড় অবদান রাখেন কিলিঙ্গার। ৩৬ বল খেলে তিনি করেন ৪৭টি রান। অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদও করেন ২৭ রান। যা খুলনার জয়কে অনেকটাই সহজ করে দেয়।

তাইজুল ইসলামের ৩ উইকেটের পাশাপাশি রস হোয়েটলিও একটি উইকেটের দেখা পেয়েছেন।

এর আগে, নাসির হোসেনের ৩৫ বলে ৪৭ রানের হার না মানা এক ইনিংসে ভর করে ৫ উইকেটে ১৩৫ রান তোলে সিলেট সিক্সার্স। শেষদিকে রস হোয়েটলি করেন ২৭ রান। আর সমান ২৬ রান করে করেন উপুল থারাঙ্গা আর দানুশকা গুনাথিলাকা।

ম্যাচ সেরার পুরস্কার উঠেছে অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহর হাতে। আর এক্সাইটিং প্লেয়ারের পুরস্কার উঠেছে তাইজুল ইসলামের হাতে।

সারাবাংলা ডট কম ডট বিডি (সারাবাংলা লাইফস্টাইল) -এ প্রকাশিত সকল নিউজ বা লেখা বাংলাদেশের প্রকাশিত বিভিন্ন অনলাইন গনমাধ্যম হতে কপি করা। আমাদের লক্ষ্য সকল খবর আমাদের পাঠকদের কাছে পৌছে দেয়া। কোন লেখা বা খবর এর দায়ভার সারাবাংলা লাইফস্টাইল এর নয়। এই সংবাদ/লেখাটি কপি করা হয়েছে এখান হতে।

Comments

comments