Breaking News

IND vs ENG 3rd T20I: সূর্যকুমার যাদবের সেঞ্চুরি সত্ত্বেও ইংল্যান্ড জিতেছে, ভারত ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতেছে

নতুন দিল্লি. সূর্যকুমার যাদব (117) সেঞ্চুরি করলেও রবিবার সিরিজের তৃতীয় T20 ম্যাচে (ENG বনাম IND 3rd T20I) ভারত 17 রানে হেরেছে। নটিংহামের ট্রেন্ট ব্রিজ স্টেডিয়ামে খেলা এই ম্যাচে, ডেভিড মালান (৭৭) এবং লিয়াম লিভিংস্টোন (অপরাজিত ৪২) এর দুর্দান্ত ইনিংসের সুবাদে ইংল্যান্ড 20 ওভারে 7 উইকেটে 215 রান করে। এরপর সূর্যকুমার যাদবের (117) সেঞ্চুরি সত্ত্বেও ভারতীয় দল 9 উইকেটে 198 রান করতে পারে। এভাবেই ৩ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জিতে নিল ভারত।

মুম্বাইয়ের ব্যাটসম্যানরা সূর্যকুমার যাদব তিনি তার টি-টোয়েন্টি আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি করেন। তিনি 55 বলে 14 চার ও 6 ছক্কার সাহায্যে 117 রান করেন। তিনি দ্বিতীয় ক্রিকেটার হিসেবে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে ভারতের হয়ে সর্বোচ্চ স্কোরার হয়েছেন। 2017 সালে ইন্দোরে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে রোহিত শর্মা তার চেয়ে বেশি রান করেছিলেন। রোহিত তখন ১১৮ রান করেন।

এই ম্যাচের পুরো স্কোরকার্ড দেখতে এখানে ক্লিক করুন

216 রানের বড় লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতেই পড়ে যায় ভারতীয় দলের ৩ উইকেট। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে জস বাটলারের হাতে রিস টপলির হাতে ক্যাচ দেন ঋষভ পান্ত (১)। আর বিরাট কোহলি ডেভিড উইলির বলে জেসন রয়ের হাতে ক্যাচ দেন (১১)। মাত্র 11 রান করার পর বিরাট এগিয়ে যান। ৬ বলে ১টি চার ও ১টি ছক্কা মারেন তিনি।

অধিনায়ক রোহিত শর্মা ৩১ রানে তৃতীয় উইকেট হিসেবে প্যাভিলিয়নে ফেরে দল। 12 বলে 2 চারের সাহায্যে 11 রান করেন রোহিত। এরপর চতুর্থ উইকেটে ১১৯ রান যোগ করেন সূর্যকুমার যাদব ও শ্রেয়াস আইয়ার। তবে এতে শ্রেয়াসের অবদান ছিল ২৮ রান। ইনিংসের ১৬তম ওভারের প্রথম বলে জস বাটলারের হাতে ক্যাচ দেন শ্রেয়াস। তিনি 23 বলে 2 ছক্কা মারেন।

সূর্যকুমার নিথর ছিলেন কিন্তু তাকে সমর্থনকারী কোনো খেলোয়াড় বেশিক্ষণ ক্রিজে থাকেননি। দলের ৭ম উইকেট হিসেবে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি। ইনিংসের ১৯তম ওভারের ৫ম বলে সূর্যকে সল্টের হাতে ক্যাচ দেন মঈন আলী। দিনেশ কার্তিক ৬ ও রবীন্দ্র জাদেজা ৭ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন। ইংল্যান্ডের হয়ে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন রিস টপলে, যিনি ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হন। ডেভিড উইলি ও ক্রিস জর্ডান পেয়েছেন ২-২ উইকেট। এছাড়া রিচার্ড গ্লিসন ও মঈন আলী নেন ১-১ উইকেট।

এর আগে, ডেভিড মালানের 39 বলে 77 রানের অর্ধশতক ইনিংসের সুবাদে ইংল্যান্ড 7 উইকেটে 215 রানের বিশাল স্কোর করেছিল। টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়ে ইংল্যান্ড ভারতের দ্বিতীয় রেট বোলিং আক্রমণের বিরুদ্ধে অনেক রান করেছে। ক্যাপ্টেন জস বাটলার (9 বলে 18) এবং জেসন রয় (26 বলে 27) পাওয়ারপ্লেতে ইংল্যান্ডকে 1 উইকেটে 52 রানে পৌঁছাতে সাহায্য করে।

আরো দেখুন হার্দিক পান্ডিয়া কি মাঝমাঠে রোহিত শর্মা বা বিরাট কোহলিকে গালি দিয়েছেন? সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল ভিডিও

এরপর ডেভিড মালান ও লিয়াম লিভিংস্টোন ৮৪ রানের জুটি গড়ে দলকে এই বড় স্কোরে নিয়ে যান। লিভিংস্টোন ২৯ বলে অপরাজিত ৪২ রান করেন। ইতিমধ্যেই সিরিজ জয়ী ভারতীয় দল তারকা অলরাউন্ডার হার্দিক পান্ড্য ছাড়াও তার প্রধান বোলার জাসপ্রিত বুমরাহ, ফর্মে থাকা ভুবনেশ্বর কুমার এবং যুজবেন্দ্র চাহালকে বিশ্রাম দিয়েছে।

ইংল্যান্ডের শক্তিশালী ব্যাটিং লাইনআপ প্রথম দুটি ম্যাচে হতাশাজনক ছিল কিন্তু তারা ভারতের দ্বিতীয়-শ্রেণীর আক্রমণকে ধুয়ে দিয়েছে। রবি বিষ্ণোই ৪ ওভারে ৩০ রান দিয়ে ২ উইকেট নেন, বোলারদের মধ্যে যার পারফরম্যান্স ছিল চমৎকার। পেসার আভেশ খান তার প্রথম 2 ওভারে 1 উইকেট নিয়ে মাত্র 6 রান দিলেও পরের 2 ওভারে অনেক রান দেন। ৪ ওভারে ৪৩ রান দিয়ে ১ উইকেট নেন তিনি।

দ্বিতীয় ওভারে ওমরান মালিককে চার মেরে স্বাগত জানান অধিনায়ক বাটলার। তিনি ৫ম বলটি মিড-উইকেটে ছক্কার জন্য পাঠান এবং তারপর অতিরিক্ত কভারে একটি চার মারেন। এই ওভারে ১৭ রান দেন। পরের ওভারে রবি বিষ্ণোইকে ছক্কা মেরেছেন জেসন রয়ও। বোলিংয়ে ওপেন করা আভেশ খান নিজের দ্বিতীয় ওভারে বাটলারের গুরুত্বপূর্ণ উইকেট পান। তার অফ স্টাম্পের বাইরে যাওয়া ধীরগতির বল স্টাম্প উপড়ে ফেলে ইংলিশ অধিনায়ক।

ষষ্ঠ ওভারে হারশাল প্যাটেল নিজের বলেই মালানের ক্যাচ মিস করেন এবং তারপর খাতাও খোলেননি ইংল্যান্ডের এই খেলোয়াড়। পাওয়ারপ্লে শেষে ওমরান মালিকের প্রথম বলেই রয় (২৭ রান) উইকেটরক্ষক ঋষভ পান্তের ব্যাট স্পর্শ করে প্যাভিলিয়নে পৌঁছে যান। ফিল সল্ট এখন মালানকে সমর্থন করতে আসলেও ৬ বল খেলে বোল্ড হন হর্ষাল প্যাটেল।

ইংল্যান্ড 10 ওভারে 3 উইকেটে 86 রান করেছিল। ডেভিড মালানের 5 ছক্কায় রবীন্দ্র জাদেজা এবং আভেশ খানের ফুল টস বলে একটি কাউ কর্নার শট দৃশ্যমান ছিল। হ্যারি ব্রুক (19 রান) এবং ক্রিস জর্ডান (3 বলে 11 রান) সহ লিভিংস্টোন ইংল্যান্ডকে 200 রানের কাছাকাছি নিয়ে যান। বিরাট তার ক্যাচ ডিপ এ ফেলে দিলে জীবন পান লিভিংস্টোন। শেষ 10 ওভারে ইংল্যান্ড 129 রান করেছে। ওমরান মালিক খুব দামি ছিলেন, যিনি 56 রান খরচ করেন এবং 1 উইকেট নেন। (ভাষা থেকে ইনপুট)

ট্যাগ: ডেভিড মালান, হিন্দি ক্রিকেট সংবাদ, IND বনাম ENG, ভারত বনাম ইংল্যান্ড, সূর্যকুমার যাদব


Source link

About sarabangla

Check Also

IND বনাম NZ: রস টেলরের ভবিষ্যদ্বাণী সত্য নয়, 27 নভেম্বর ভারতের জন্য কর বা মরো

হাইলাইট ভারতকে ৭ উইকেটে হারিয়ে সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল নিউজিল্যান্ড। ভারত ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *