Breaking News

ভগন্দরেও নিজে থেকে ওষুধ খাবেন না, অস্ত্রোপচার ছাড়াই রোগ সেরে যাবে এভাবে

হাইলাইট

স্ব-ওষুধ ফিস্টুলাকে আরও জটিল করে তোলে
70 শতাংশ ফিস্টুলার ক্ষেত্রে অস্ত্রোপচারের প্রয়োজন হয় না।

ফিস্টুলায় স্ব-ঔষধ বিপজ্জনক: মলদ্বারে ফিস্টুলা বা ফিস্টুলা এমন একটি রোগ যেখানে একটি ছোট সুড়ঙ্গে একটি ফোড়া তৈরি হয় যার মুখ মলদ্বারের কাছে একটি সংক্রামিত ছিদ্রে খোলে। আসলে, মলদ্বারের ঠিক ভিতরে অনেক ছোট ছোট গ্রন্থি আছে যেখান থেকে শ্লেষ্মা বের হয়। কখনও কখনও, এই গ্রন্থিগুলি আটকে যায় এবং তারা সংক্রামিত হতে পারে। এটি সংক্রমণের কারণে ফুটতে পারে। প্রায় অর্ধেক শ্লেষ্মা সংক্রামিত হয় এবং ফোঁড়াতে পরিণত হয়। ফিস্টুলার অনেক কারণ রয়েছে। এটি বিকিরণ, ট্রমা, যৌনবাহিত রোগ, যক্ষ্মা, ডাইভার্টিকুলাইটিস, ক্যান্সার ইত্যাদির কারণে হতে পারে। যাইহোক, বেশিরভাগ ক্ষেত্রে, ফিস্টুলা একটি সাধারণ সংক্রমণের কারণে হয়। তাই ক্যান্সারের ভয় আপনার ভিতরে আনবেন না।

আসলে মলদ্বারের চারপাশে ফুলে যায় এবং রক্তও বের হতে থাকে। যার কারণে রোগীর অসহ্য যন্ত্রণা হয়। সাধারণত এই অবস্থায় লোকেরা আশেপাশের ওষুধের দোকান থেকে ওষুধ খেয়ে ব্যথা নিরাময় করে, তবে নিজেরাই নেওয়া ওষুধ রোগটিকে আরও বাড়িয়ে তুলতে পারে।

15 শতাংশ রোগী নিজেরাই চিকিৎসা নিতে আসেন
ht অ্যাসোসিয়েশন অফ সার্জনস অফ ইন্ডিয়ার বার্ষিক সম্মেলনে সার্জন ডাঃ আরশাদ আহমেদের খবর অনুযায়ী, ফিস্টুলায় স্ব-পরিচালিত ওষুধ অনেক স্বাস্থ্য সমস্যার ঝুঁকি আরও বাড়িয়ে তুলতে পারে। এ বিষয়ে বক্তৃতা দিতে গিয়ে তিনি বলেন, ফিস্টুলার প্রায় ১৫ শতাংশ রোগী নিজে থেকে ওষুধ খেয়ে ঠিক না হলে ওপিডিতে আসেন। এর আগে, হয় তারা নিজেদের ওষুধ সেবন করে অথবা তারা স্থানীয় কুয়াকদের কাছ থেকে ওষুধ গ্রহণ করে। এটি তাদের রোগকে আরও বাড়িয়ে তোলে এবং তাদের দীর্ঘ সময়ের জন্য চিকিত্সা করা প্রয়োজন।

প্রাথমিক পর্যায়ে ডাক্তারের কাছে আসা উচিত
ডাঃ আহমেদ বলেন, স্ব-ওষুধের কারণে ফিস্টুলা অনেক বেশি জটিল হয়ে যায় এবং এ অবস্থায় বড় ধরনের অস্ত্রোপচার করতে হয়। তিনি বলেন, পাইলস ও জ্বর লাইফস্টাইল সংক্রান্ত রোগ হলেও এসব রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিদের ফিস্টুলার প্রবণতা বেশি। ডক্টর আহমেদ বলেন, ফিস্টুলার কারণে মানুষ সাধারণত বিব্রত বোধ করতে শুরু করে। সেজন্য তারা আশেপাশের কোয়াকের কাছে যায়, কিন্তু ফিস্টুলার ৭০ শতাংশ ক্ষেত্রে অস্ত্রোপচারের প্রয়োজন হয় না। তাই রোগীরা প্রাথমিক অবস্থায় চিকিৎসকের কাছে এলে অস্ত্রোপচার ছাড়াই সুস্থ হয়ে যায়।

ট্যাগ: স্বাস্থ্য, স্বাস্থ্য পরামর্শ, জীবনধারা


Source link

About sarabangla

Check Also

খুব বেশি গুড় খাওয়া আপনার স্বাস্থ্যের ক্ষতি করতে পারে, শীতকালে এটি সাবধানে খান, জেনে নিন এর ক্ষতিকর দিকগুলো

গুড়ের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া: মানুষ গ্রীষ্মের চেয়ে শীতকাল বেশি পছন্দ করলেও শীত এলেই নানা ধরনের রোগও দ্রুত …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *