Breaking News

পাকিস্তান ও ইংল্যান্ডের মধ্যে ফাইনালের প্রতিদ্বন্দ্বী কে? পাওয়ারপ্লেতে কোন দল রাজা

নতুন দিল্লি. অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে টিম ইন্ডিয়ার যাত্রা শেষ। সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের কাছে টিম ইন্ডিয়াকে 10 উইকেটের শোচনীয় পরাজয়ের মুখোমুখি হতে হয়েছিল, তারপরে আবারও টিম ইন্ডিয়ার 15 বছর পর শিরোপা জয়ের স্বপ্ন ভেঙ্গে যায়। টিম ইন্ডিয়ার যাত্রা হয়তো শেষ হয়ে গেছে কিন্তু ক্রিকেট ভক্তরা এখন মেলবোর্নে অনুষ্ঠিতব্য ফাইনালের জন্য প্রস্তুত। শিরোপার জন্য মুখোমুখি পাকিস্তান ও ইংল্যান্ড। এটাকে 1992 বিশ্বকাপের পুনরাবৃত্তি বলা হচ্ছে কারণ সেই সময়েও পাকিস্তান ও ইংল্যান্ডের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছিল এবং মাঠটিও ছিল মেলবোর্ন যেখানে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে পাকিস্তান বিশ্বকাপ জিতেছিল। তবে এখন গল্প পাল্টেছে, এখন আবারো টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শিরোপা জিততে চায় দুই দলই। এমতাবস্থায় মেলবোর্নে অনুষ্ঠিতব্য মহাজঙ্গের জন্য প্রস্তুত দুজনই।

চলুন দেখে নেওয়া যাক উভয় দলের সেরা পারফরম্যান্সকারী খেলোয়াড়দের। প্রথমেই বলি পাকিস্তানের খেলোয়াড়দের কথা

1 মোহাম্মদ রিজওয়ান: এই বিশ্বকাপে ৬ ম্যাচে ১৬০ রান করেছেন পাকিস্তানের উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ রিজওয়ান। এই বিশ্বকাপে রিজওয়ানের স্ট্রাইক রেট ১০৯.৫৮। বিশ্বকাপে রিজওয়ানের সেরা স্কোর ৫৭ রান। এমতাবস্থায় ফাইনালে পাকিস্তানকে ভালো সূচনা দেওয়ার দায়িত্ব পড়বে রিজওয়ানের।

2. শান মাসউদ: বিশ্বকাপে পাকিস্তানের হয়ে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন শান মাসুদ। মাসুদ বিশ্বকাপে 6 ম্যাচে 114.16 স্ট্রাইক রেটে 137 রান করেছেন। মিডল অর্ডার সামলানোর দায়িত্ব থাকবে শান মাসুদের হাতে।

PAK vs ENG: পাকিস্তান ও ইংল্যান্ডের মধ্যে ফাইনাল সংঘর্ষ, মেলবোর্নে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে দুর্দান্ত ম্যাচ

3. ইফতিখার আহমেদ: এই নামটিই বিশ্বকাপে পাকিস্তানের মিডল অর্ডারকে হত্যা করছে। এই বিশ্বকাপে পাকিস্তানের একমাত্র ব্যাটসম্যান ইফতিখার আহমেদ যার নামে দুটি হাফ সেঞ্চুরি রয়েছে। মেলবোর্নে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া সবচেয়ে বড় ম্যাচে পাকিস্তানের ভক্তরা চাইবেন ইফতিখার আবারও তার ব্যাটিং দক্ষতা দেখান।

4. শাহীন আফ্রিদি: পাকিস্তানকে ফাইনালে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনকারী খেলোয়াড় হলেন শাহীন আফ্রিদি। বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত ৬ ম্যাচে ১০ উইকেট নিয়েছেন শাহীন। সেটিও 6.17 এর একটি চমৎকার অর্থনীতির সাথে। নতুন বলে ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যানদের দ্রুত আউট করার দায়িত্ব থাকবে শাহীনের ওপর।

5. শাদাব খান: পাকিস্তানের এই খেলোয়াড়কে ম্যাচ উইনার বললে ভুল হবে না কারো। শাদাব খান সেই খেলোয়াড় যে শুধু তার গুগলি দিয়ে নয়, তার বিস্ফোরক ব্যাটিং দিয়েও প্রতিপক্ষ দলকে হারাতে পারে। বিশ্বাস না হলে দক্ষিণ আফ্রিকা দলকে জিজ্ঞেস করুন। যা দেখেছে শাদাবের ব্যাটিং ও বোলিং দুটোতেই। বিশ্বকাপে শাদাবের আছে ১০ উইকেট।

T20 WC ফাইনাল: 15 বছর পরেও ভারতের স্বপ্ন অপূর্ণ, তবে 13 বছর পরেও কোনও ভুল করবে না পাকিস্তান

6. মোহাম্মদ ওয়াসিম: পাকিস্তানের পেস ব্যাটারিতে এমন কাঁপুনি যা তার গতি দিয়ে প্রতিপক্ষ বোলারদের পরীক্ষা করে। এই বিশ্বকাপে পাকিস্তান থেকে ৭ প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যানকে নিজের শিকারে পরিণত করেছেন মোহাম্মদ ওয়াসিম। এমন পরিস্থিতিতে পাকিস্তানের এই বিপজ্জনক বোলারের ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে বাটলার অ্যান্ড কোম্পানিকে।

এবার আসা যাক ইংল্যান্ডের খেলোয়াড়দের নিয়ে

1. অ্যালেক্স হেলস: ইংল্যান্ড ক্রিকেটের যে নামটি বিশ্বকাপ শুরুর ৩ মাস আগে বিশ্বকাপ পরিকল্পনায় অন্তর্ভুক্ত ছিল না, কিন্তু জনি বেয়ারস্টো ইনজুরির পর হেলসকে দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। এই বিশ্বকাপে হেলসের 5 ম্যাচে 211 রান রয়েছে, সেটিও 148.59 এর জ্বলন্ত স্ট্রাইক রেট দিয়ে। ভারতের বিপক্ষে খেলা ইনিংস থেকে হেলসের আত্মবিশ্বাস অবশ্যই তুঙ্গে থাকবে।

2. জস বাটলার: এই মুহূর্তে দুর্দান্ত ফর্মে রয়েছেন ইংল্যান্ডের অধিনায়ক জস বাটলার। সেমিফাইনালে ভারতের বিপক্ষে বাটলার ও হেলস যেভাবে নির্ভয়ে ব্যাটিং করেছেন, তাতে নিশ্চয়ই বাবর অ্যান্ড কোং মুগ্ধ হবে। আয়ারল্যান্ডের কাছে হারের পর বাটলার শুধু সামনে থেকে দায়িত্ব নেননি, নিজের দলকে তৃতীয়বারের মতো ফাইনালে নিয়ে যান ক্রিকেটের এই ফরম্যাটে। বাটলার এই বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত 143.16 এর জ্বলন্ত স্ট্রাইক রেট দিয়ে 199 রান করেছেন। সেমিফাইনালে ভারতের বিপক্ষে অপরাজিত ৮০ রান এই বিশ্বকাপে বাটলারের সেরা স্কোর।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ: ফাইনালে কি বাধা হবে বৃষ্টি? জেনে নিন মেলবোর্নের আবহাওয়া কেমন এবং পিচ কী বলে

3. বেন স্টোকস: সাধারণত কিছু খেলোয়াড় বড় ম্যাচে ছত্রভঙ্গ হয়ে যায় কিন্তু বেন স্টোকস এমন একজন খেলোয়াড় যে তার খেলাকে চাপের মধ্যে নিয়ে যায়। অ্যাশেজে হেন্ডিগলির ইনিংস হোক বা 2019 বিশ্বকাপের ফাইনালে বেনের ইনিংস বা চলতি বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে শেষ লিগ ম্যাচে যেখানে স্টোকস অপরাজিত 42 রান করেছিলেন। জস বাটলার আবারও আশা করবেন যে তিনি ফাইনালেও ভালো পারফর্ম করবেন।

4. স্যাম করণ: এই বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের হয়ে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী স্যাম করণ। স্যাম করণ ৫ ম্যাচে ১০ উইকেট নিয়েছেন। শিগগিরই বাবর আজম ও মোহাম্মদ রিজওয়ানকে আউট করার দায়িত্ব থাকবে।

5. মার্ক উড: মার্ক উডের পেস আছে যা প্রতিপক্ষের ব্যাটসম্যানদের পরীক্ষা করার জন্য যথেষ্ট। এই বিশ্বকাপে মার্ক উড নিয়েছেন ৯ উইকেট। ভারতের বিপক্ষে মার্ক উড চোট পেলেও ক্রিস জর্ডানকে সুযোগ দেয় ইংল্যান্ড।

বাকি বিরিয়ানি খেয়ে বিশ্বকাপ ফাইনালে ইংল্যান্ডের ছক্কা বাঁচিয়েছিলেন ওয়াসিম আকরাম, এবারও কি এমন অলৌকিক ঘটনা ঘটবে?

পাওয়ারপ্লেতে পাকিস্তানের স্কোর
ভারতের বিপক্ষে-৩২/২
জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে-২৮/২
নেদারল্যান্ডের বিপক্ষে-41/1
দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে – 42/3
বাংলাদেশের বিপক্ষে – ৩৫/০
নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে-55/0

পাওয়ারপ্লেতে ইংল্যান্ডের স্কোর
আফগানিস্তানের বিপক্ষে – 40/1
আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে – ৩৭/৩
অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ বাতিল
নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে-48/0
শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে – ৭০/০
ভারতের বিপক্ষে-63/0

ট্যাগ: বাবর আজম, ইংল্যান্ড বনাম পাকিস্তান, জস বাটলার, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ 2022


Source link

About sarabangla

Check Also

IND বনাম NZ: রস টেলরের ভবিষ্যদ্বাণী সত্য নয়, 27 নভেম্বর ভারতের জন্য কর বা মরো

হাইলাইট ভারতকে ৭ উইকেটে হারিয়ে সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল নিউজিল্যান্ড। ভারত ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *