Published by: Subhajit Mandal |    Posted: April 5, 2020 5:24 pm|    Updated: April 5, 2020 5:24 pm
সারাবাংলা ডেস্ক: করোনার (COVID-19) কামড়ে যদি সবচেয়ে বেশি কোনও শিল্প ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে থাকে তাহলে সেটা পর্যটন শিল্প। বিশ্বব্যাপী লকডাউনের জেরে অতিমাত্রায় ভ্রমণপিপাসুরাও বাড়ি থেকে বেরতে পারছেন না। ফলে বিপাকে পড়েছেন পর্যটন শিল্পের উপর নির্ভর করে যাঁদের রুজিরুটি চলে সেইসব মানুষেরা। গোটা বিশ্বেই একই ছবি দেখা যাচ্ছে। তবে ব্যবসায়ীদের ধারণা, অন্য দেশের তুলনায় ভারতের পর্যটন শিল্পের উপর করোনার প্রভাব বেশি পড়বে। তাঁরা বলছেন, সরকার যদি দ্রুত আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা না করে, তাহলে লকডাউনের পরবর্তী সময়ে দেশের অন্তত ৫ কোটি মানুষ কাজ হারাতে পারেন। এই মর্মে প্রধানমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রী এবং পর্যটন মন্ত্রককে চিঠি লিখেছেন এই শিল্পের সঙ্গে যুক্ত অন্তত ১০টি সংগঠনের কর্তারা।Federation of Associations in Indian Tourism and Hospitality নামের একটি সংস্থার ব্যানারে একত্রিত হয়ে ১০ সংস্থার শীর্ষ কর্তারা বলছেন, করোনা আতঙ্ক এবং লকডাউনের জেরে পর্যটন শিল্পের অবস্থা করুন। এই ১০ টি সংস্থার কর্তারা শনিবার কেন্দ্রীয় পর্যটন মন্ত্রকের সচিব যোগেন্দ্র ত্রিপাঠির সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে বৈঠক করেন। সেখানে, এই শিল্পের ভবিষ্যৎ নিয়ে উদ্বেগপ্রকাশ করেন তাঁরা। কেন্দ্রকে পর্যটন সংস্থাগুলির কর্তারা জানিয়েছেন, কেন্দ্র যদি আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা না করে, তাহলে অন্তত ৫ কোটি মানুষ কর্মহীন হবেন।[আরও পড়ুন: ৫ এপ্রিল কি উঠে যাচ্ছে লকডাউন? জল্পনা বাড়াল যোগীর দাবি]করোনা আতঙ্কে বছরের শুরু থেকেই কম হয়েছে আন্তর্জাতিক পর্যটকদের আনাগোনা। লক ডাউনের পর পুরো বন্ধ পর্যটন। যা কিনা অনেকের ঘরে আধার ডেকে এনেছে। এই সমস্যা থেকে নিস্তার পেতে পর্যটন সংস্থাগুলি সরকারের কাছে ২০ দফা দাবি পেশ করেছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল, কর্মীদের বেতনের জন্য আর্থিক সাহায্য, আগামী এক বছর পুরোপুরি করছাড়, বিমানের টিকিট বাতিলে পুরো টাকা ফেরত, জিএসটি মকুব ইত্যাদি। যদিও এ নিয়ে সরকার এখনও নিজেদের অবস্থান জানায়নি।

Source link

Comments

comments