Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: December 1, 2020 10:37 pm|    Updated: December 1, 2020 10:54 pm
সারাবাংলা ডেস্ক: কোন্দল মিটিয়ে দলের ভাঙন রোধ করতে ‘বিক্ষুব্ধ’ হেভিওয়েট নেতা শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে বৈঠক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ও তৃণমূলের ‘ভোট সেনানায়ক’ প্রশান্ত কিশোর ওরফে পিকের।[আরও পড়ুন: কলকাতায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা পেরল ১ লক্ষের গণ্ডি, রাজ্যে সুস্থতার হার ৯৩ শতাংশের বেশি]সূত্রের খবর, মঙ্গলবার অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকে বসেন শুভেন্দু অধিকারী। উত্তর কলকাতার একটি বাড়িতে ২ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে চলে আলোচনা। ওই বৈঠকে ছিলেন প্রশান্ত কিশোর, সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিনই বৈঠকের বিষয়ে সৌগত রায় বলেন, শুভেন্দু-অভিষেক-পিকে-কে নিয়ে মুখোমুখি বসার প্রয়োজন ছিল। আলোচনা সদর্থক হয়েছে। সমস্যা মিটে গেছে বলেও দাবি করেছেন সৌগত রায়ের। বৈঠকের বিষয়ে শুভেন্দু অধিকারীর বাবা তথা বর্ষীয়ান তৃণমূল নেতা শিশির অধিকারী বলেন, “সমস্যা মিটে গেলে ভাল। পার্টির জন্য মঙ্গল।”উল্লেখ্য, সদ্য মন্ত্রিত্ব ত্যাগ করলেও বিধায়ক পদ ও তৃণমূল ছাড়েননি শুভেন্দু অধিকারী। তবে তৃণমূল হাইকমান্ডের সঙ্গে শুভেন্দু অধিকারীর (Suvendu Adhikari) ঠান্ডা লড়াইর চিহ্ন পাওয়া যাচ্ছিল বেশ কয়েকদিন ধরেই। তাঁর নামে পোস্টার পড়তে শুরু করেছিল রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে। পোস্টার দিচ্ছিল দাদা, শুভেন্দুর অনুগামীরা। বিষয়টিকে প্রথম ততটা গুরুত্ব দেওয়া না হলেও মেদিনীপুরের দাপুটে নেতার মন্ত্রিত্ব ত্যাগে নড়েচড়ে বসেছে শাসকদল। পালটা ‘দিদির সঙ্গে’ পোস্টার দিচ্ছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনুগামীরা। এদিনও পূর্ব মেদিনীপুর ছাড়াও মালদহের হরিশ্চন্দ্রপুর, দক্ষিণ ২৪ পরগনার সোনারপুর এবং জয়নগর-মজিলপুরের বিভিন্ন এলাকায় নজরে পড়ে একাধিক পোস্টার। [আরও পড়ুন: লিলুয়ায় রেল ভবন নির্মাণে দুর্নীতির অভিযোগ, গাঁথনিতে ব্যবহার হচ্ছে পুরনো ইঁট]

Source link

Comments

comments