Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: August 2, 2020 1:51 pm|    Updated: August 2, 2020 4:18 pm
সারাবাংলা ডেস্ক: করোনা (Corona Virus) সংক্রমণ বাড়তে থাকায় ফের তারাপীঠ  মন্দির (Tarapith Temple) বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। আর এই সুযোগকেই কাজে লাগাচ্ছে প্রতারণা চক্র। তাদের বিশ্বাস করে ১০০ থেকে ১০ হাজার, বিভিন্ন অঙ্কের টাকা খোয়াচ্ছেন ভক্তরা।করোনা সংক্রমণ বাড়তে থাকায় মার্চের শেষদিকেই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল রাজ্যের সমস্ত ধর্মস্থান। সেই থেকেই ভক্তদের প্রবেশ বন্ধ তারাপীঠ মন্দিরে। পরবর্তীতে আনলক পর্যায়ে একাধিক মন্দির খুললেও দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল তারাপীঠ। কারণ, ভক্তদের ভিড়ের মাঝে সামাজিক দূরত্ব পালন সম্ভব হবে কি না, তা নিয়ে সংশয় ছিল কর্তৃপক্ষের। করোনা আবহেও কীভাবে পুজো হবে তা নিয়ে দফায় দফায় বৈঠক করে মন্দির কমিটি। ভক্তদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করে কিছুদিন আগে খোলে মন্দির। তবে সেক্ষেত্রেও একাধিক বিধিনিষেধ ছিল। প্রবেশের ক্ষেত্রে বেঁধে দেওয়া হয়েছিল দর্শনার্থীর সংখ্যা। বাধ্যতামূলক করা হয়েছিল মাস্ক-স্যানিটাইজার। তবে কিছুদিনের মধ্যেই গোটা রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি বিবেচনা করে ফের বন্ধ করে দেওয়া হয় তারাপীঠ। এরপর থেকেই মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে বেশ কিছু প্রতারণা চক্র। মন্দিরের নামে ভুয়ো ওয়েবসাইট খুলেছে তারা। অভিযোগ, অনলাইন পুজোর নাম করে দর্শনার্থীদের কাছ থেকে মোটা টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে ওই চক্রের পাণ্ডারা।[আরও পড়ুন: চলতি সপ্তাহে রাজ্যে ফের দুর্যোগের আশঙ্কা, জেনে নিন কী বলছে হাওয়া অফিস]এ বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই মন্দির কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলা হলে, তারা সাফ জানিয়েছে যে, তারাপীঠে অনলাইন পুজোর কোনও ব্যবস্থা নেই। করোনার কারণে আপাতত মন্দির বন্ধ। পুনরায় চালু হলে তবে দর্শনার্থীরা পুজো দিতে পারবেন। মন্দির কর্তৃপক্ষের কথায়, “ইতিমধ্যেই আমাদের কাছেও একাধিক অভিযোগ এসেছে। অনেকেই বলেছেন অনলাইনে পুজোর অনেকগুলি ওয়েবসাইট নেটে দেখা যাচ্ছে। কিন্তু এগুলোর সঙ্গে মন্দিরের কোনও সম্পর্ক নেই।” পাশাপাশি ভক্তদের সতর্ক করে মন্দির কমিটি বলেছে, কেউ এই প্রতারণা চক্রের ফাঁদে পা দেবেন না।[আরও পড়ুন: ‘শিল্প সম্মেলনে রাজ্যে বিনিয়োগ কত?’ বিজনেস সামিটে আর্থিক বেনিয়মের অভিযোগে সরব ধনকড়]

Source link

Comments

comments