Published by: Paramita Paul |    Posted: September 24, 2020 6:06 pm|    Updated: September 24, 2020 6:26 pm
সারাবাংলা ডেস্ক: দুর্গাপুজো নিয়ে বড় ঘোষণা বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Bannerjee)। মহামারী আবহে পুজো করতে গিয়ে আর্থিক অনটনের মুখে পড়ছে কমিটিগুলি। তাই তাঁদের পাশে দাঁড়িয়ে বড় অঙ্কের  আর্থিক সাহায্যের কথা ঘোষণা করলেন মমতা। একইসঙ্গে পুজো কমিটিগুলিকে একাধিক কর ছাড়ও দেওয়া হল। মুখ্যমন্ত্রীর কথায়, রোগকে হারিয়ে বাংলা জিতবেই।বৃহস্পতিবার নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে পুজো কমিটিগুলির সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে থেকে একাধিক ঘোষণা করেন মমতা। জানান, সব রেজিস্টার্ড পুজো (Durga Puja) কমিটিগুলিকে এবার ৫০ হাজার টাকা করে অনুদান দেবে রাজ্য সরকার। পাশাপাশি, রেজিস্টার্ড পুজোগুলির জন্য বেশকিছু করও মকুব করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে পুরকর, দমকলের ফি-ও। এমনকী, বিদ্যুতের ক্ষেত্রে ৫০ শতাংশ কর মকুব করা হয়েছে। সিইএসসি ও রাজ্য বিদ্যুৎ পর্ষদের ক্ষেত্রে এই ছাড় দেওয়া হচ্ছে। [আরও পড়ুন : করোনা আতঙ্ক এড়িয়ে সতর্কভাবে হোক দুর্গাপুজো, নিয়মাবলি ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর]গত ছমাস ধরে মহামারীর মোকাবিলা করছে রাজ্য তথা গোটা দেশ। এমন আবহে দুর্গাপুজো নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়ে গিয়েছিল। পাশাপাশি, পুজোর জন্য প্রয়োজনীয় আর্থিক সাহায্য পাওয়া নিয়েও দোটানা তৈরি হয়েছিল। এদিন মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণায় সেই অবস্থা থেকে রেহাই পাওয়া গেল বলেই মনে করছে পুজো কমিটিগুলি। এদিন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “এবার আর্থিক পরিস্থিতি ভাল না। তাই পুজো কমিটিগুলি বিজ্ঞাপন পাওয়া নিয়ে চিন্তায় রয়েছে। স্পনসরও পাচ্ছে না। তাই রাজ্য সরকার সাধ্যমতো তাঁদের পাশে দাঁড়াচ্ছে।” এরপরই রেজিস্টার্ড পুজো কমিটিগুলিকে ৫০ হাজার টাকা করে আর্থিক সাহায্য় করার কথা জানান। এ বিষয়ে বলতে গিয়ে মমতা আরও বলেন, “রাজ্য সরকারেরও হাতে টাকা নেই। করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করতে গিয়ে আড়াই হাজার  কোটি টাকা খরচ হয়েছে। ফলে যথাসাধ্য সাহায্য ও পাশে থাকার চেষ্টা করছে রাজ্য সরকার।”[আরও পড়ুন : করোনা চিকিৎসায় রাজ্যের বেঁধে দেওয়া খরচের সীমা না মানায় শাস্তির মুখে ২ বেসরকারি হাসপাতাল]

Source link

Comments

comments