কাগজে কলমে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বলা হলেও বেশ কিছু মানুষের অপব্যবহারের কারণে শেষ পর্যন্ত এটাকে আর সামাজিক মাধ্যম বলার উপায় থাকছে না। ফেসবুক, টুইটারসহ অন্য সামাজিক মাধ্যমগুলোতে রোজই হেনস্তার শিকার হচ্ছেন অনেকে। সেলিব্রেটি হলে তো আর কথাই নেই। করুচিপূর্ণমন্তব্যে সয়লাব হয়ে উঠবে আপনার ওয়াল। এমন খুব কম সেলিব্রেটি আছেন যাঁরা এমন পরিস্থিতির শিকার হননি। হেনস্তার তালিকায় সর্বশেষ নামটি ভারতীয় পেসার ইরফান খান।

সম্প্রতি স্ত্রীকে নিয়ে কোনো একখানে বেরোনোর উদ্দেশ্যে বের হেয়ছিলেন ভারতীয় বোলার। এমন সময় ইরফানের মাথায় সেলফি নেওয়ার একখানা বুদ্ধি চাপে। ছবি তোলার জন্য ফোন বের করেন তিনি। ইরফানের স্ত্রী সাফা বেগ দুষ্টুমি করে এই সময় হাত দিয়ে তাঁর মুখ ঢেকে নেন। তবে চোখ খোলাই রাখেন তিনি।

স্বামী-স্ত্রীর এই দুষ্টুমি ভক্তদের সঙ্গে ভাগাভাগি করেন এক সময়ে ভারতীয় ক্রিকেটের অন্যতম এই কাণ্ডারি। ভক্তরাও দারুণ প্রশংসা করেছেন সফল এই জুটির। তবে কিছু মানুষ বিষয়টিকে মোটেও ভালোভাবে নেননি। ইরফানের স্ত্রী কেন বোরখা পরেননি, কেন হাত ঢেকে রাখেননি, কেন স্ত্রীর ছবি ফেসবুকে দিয়েছেন ইরফান- এসব মন্তব্য করতে থাকে তারা।

রেজা্ নামের একজন মন্তব্য করেন, ‘কেবল মুখ ঢাকলেই তো হবে না, হাতটাও ঢাকা উচিত। এটাই তো মুসলামেন দায়িত্ব। আপনার বৌকে এটা শেখাননি আপনি। অনেকে, সাফার নেইল পলিশ নিয়েও বেফাঁস মন্তব্য করে।

এর আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্ত্রীর ছবি পোস্ট করে বড় ধরনের বিপাকে পড়েন পেসার মোহাম্মদ শামি। স্লিভলেস ব্লাউজ পরার কারণে সমালোচকরা শামির কড়া সমালোচনা করেন। শামি অবশ্য ছেড়ে দেননি। টুইটারে কড়া ভাষায় এই পেসার লিখেন, ‘এটা আমাদের জীবন। কী করতে ও পরতে হবে সেটা ভালোভাবে জানি আমরা।’

Comments

comments