Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: April 5, 2020 4:41 pm|    Updated: April 5, 2020 5:52 pm

সারাবাংলা ডেস্ক: চিকিৎসক, পুলিশের মতোই করোনার সঙ্গে লাগাতার যুদ্ধ করছেন সাংবাদিকরাও। প্রাণের ঝুঁকি নিয়েও কাজ করে চলেছেন তাঁরা। এবার সেই সাংবাদিককেই দেখা গেল অন্য ভূমিকায়। টানা লকডাউনে ক্লা্ন্ত এলাকাবাসীদের কিছুটা চাঙ্গা করতে রাজপথে দাঁড়িয়েই গান ধরলেন সংবাদ প্রতিদিনের প্রতিনিধি জ্যোতি চক্রবর্তী। সহযোদ্ধার ভূমিকায় বনগাঁর এসডিপিও ও পুলিশ আধিকারিকরা। করোনা আবহে স্বাভাবিকভাবেই অনেকটাই বদলে গিয়েছে বাঙালির চেনা রবিবারের দুপুরের ছবিটা। তবে আজ, রবিবারের দুপুরে পুলিশ ও সাংবাদিকের এই উদ্যোগে যেন এক মুঠো তাজা বাতাস উপহার পেলেন বনগাঁবাসীরা।
পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ীই রবিবার দুপুরে বনগাঁ জেলা পুলিশের উদ্যোগে উত্তর ২৪ পরগনার বনগাঁর বাটার মোড়ে হাজির হন সংবাদ প্রতিদিনের প্রতিনিধি জ্যোতি চক্রবর্তী। ছিলেন বনগাঁর এসডিপিও-ও পুলিশ আধিকারিকরা। বাটার মোড়ে দাঁড়িয়েই ‘আমরা করব জয়’-এর সুরে গান ধরেন ওই সাংবাদিক ও বনগাঁর এসডিপিও অশেষবিক্রম দস্তিদার। গানের সঙ্গে কাজন বাজান স্বরূপ পাল নামে এক পুলিশ আধিকারিকারিক। গানের মধ্যে দিয়ে করোনা নিধনের বার্তা দেন তাঁরা। আপাতত সকলকে ঘরে থাকার, দূরত্ব বজায় রাখার আহ্বান জানান তাঁরা। বাইরে বের হলে নিজের ও পরিবারের বিপদ তাও তুলে ধরেন গানের মাধ্যমে। 
[আরও পড়ুন: ডিজিটাল রেশন কার্ড না থাকলেও মিলবে ডাল-ডাল, অভিনব উদ্যোগ প্রশাসনের]
এরপর করোনা সচেতনতা বাড়াতে আবৃত্তি করেন জেলা পুলিশ আধিকারিক শৌভনিক মুখার্জী। কেউ বাড়ির ছাদ, কেউ আবার ব্যালকনি থেকে সাংবাদিক ও পুলিশের এই মেলবন্ধন উপভোগ করেন। কেউ ওদের সুরেই গুনগুনিয়ে ওঠেন। সব মিলিয়ে এক অন্যরকম পরিবেশ তৈরি হয় ওই বাটার মোড়ে। প্রসঙ্গত, এরাজ্যে গান থেরাপির সূত্রধর কলকাতা পুলিশ। ঘরবন্দি মানুষকে উতসাহ দিতে প্রথম রাস্তায় নেমে গান ধরেছেন কলকাতা পুলিশের আধিকারিকরা। রবিরার সকালে বারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের সোদপুর এলাকায় গায়কের ভূমিকায় দেখা গিয়েছিল পুলিশকে, এরপরই একই ভূমিকায় সাংবাদিক।
দেখুন ভিডিও:

[আরও পড়ুন: মধ্যমগ্রামেও করোনার থাবা, মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভরতি কাউন্সিলর]

Source link

Comments

comments