হাইলাইটসএ বার করোনাভাইরাসের প্রভাব পড়ল কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উত্‍‌সবের উপর। অতিমারী পরিস্থিতিতে মানুষের সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে কলকাতা ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল এ বছর পিছিয়ে দেওয়া হচ্ছে বলে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ট্যুইট করে এ কথা ঘোষণা করেন তিনি। উত্‍‌সবের জন্য নতুন যে দিন ধার্য করা হয়েছে, তাও জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: এ বার করোনাভাইরাসের প্রভাব পড়ল কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উত্‍‌সবের উপর। অতিমারী পরিস্থিতিতে মানুষের সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে কলকাতা ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল এ বছর পিছিয়ে দেওয়া হচ্ছে বলে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ট্যুইট করে এ কথা ঘোষণা করেন তিনি। উত্‍‌সবের জন্য নতুন যে দিন ধার্য করা হয়েছে, তাও জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। বৃহস্পতিবার দুপুরে ট্যুইট করে কলকাতা চলচ্চিত্র উত্‍‌সব পিছিয়ে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি লিখেছেন, ‘কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উত্‍‌সবের সব স্টেকহোল্ডার ও সমস্ত সিনেপ্রেমীদের জানাচ্ছি যে, আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র জগতের বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ মেনে পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে আমাদের উত্‍‌সবের সময়ের পরিবর্তন করা হয়েছে। এটা এ বার হতে চলেছে ২০২১ সালের ৮-১৫ জানুয়ারি। আসুন, প্রস্তুতি শুরু করা যাক!’এ বছর উৎসবের ২৬তম বছর। নবান্ন সূত্রে খবর, উত্‍‌সবের প্রস্তুতি প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে। মুম্বইয়ে শাহরুখ খান, অমিতাভ বচ্চন-সহ নানা বিশিষ্ট অতিথির কাছে আমন্ত্রণ পৌঁছেও গিয়েছে। বিভিন্ন বিভাগে প্রতিযোগিতার জন্য ছবির নির্বাচনের কাজও প্রায় শেষ। বাংলার পক্ষ থেকে এ বার থাকছে অর্জুন চক্রবর্তী, দিতিপ্রিয়া রায় অভিনীত ‘অভিযাত্রিক’। আগে শোনা গিয়েছিল, করোনার কারণে এ বারের উৎসবে দেশ-বিদেশের অনেক অতিথিই আসবেন না। এমনিতেই বিশ্বের নামী চলচ্চিত্র উৎসবগুলি হয় পিছিয়ে গিয়েছে, নয় ভারচুয়ালি হয়েছে। MAMI বাতিল হয়েছে। গোয়ার উৎসব (IFFI Goa) পিছিয়ে গিয়েছে আগামী বছরের জানুয়ারিতে। পিছিয়ে গিয়েছে অস্কার ও বাফটাও। ৫ নভেম্বর থেকে কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসব শুরু হওয়ার কথা ছিল। তা-ও এ বার পিছিয়ে দেওয়া হল। ক্যান্সারে প্রয়াত বিধানসভার উপাধ্যক্ষ সুকুমার হাঁসদা, শোকপ্রকাশ মুখ্যমন্ত্রীরকরোনার প্রকোপে এ বছর রাজ্যে দুর্গা পুজোও নমো নমো করে হয়েছে। হাইকোর্টের নির্দেশে প্যান্ডেলে ঢোকা বারণ ছিল। প্যানডেমিক পরিস্থিতিতে বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ মেনে মানুষও বাইরে খুব একটা বের হননি। তাই এ বারের দুর্গাপুজোর বঙ্গের ছবিটা ছিল একেবারে আলাদা। এ বার আরও একটা উত্‍‌সবে কোপ পড়ল মারণ ভাইরাসের কারণে।ডাকাডাকিতে কয়েকবার তাকিয়েছেন, তবু সংকটেই সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়এই সময় ডিজিটাল এখন টেলিগ্রামেও। সাবস্ক্রাইব করুন, থাকুন সবসময় আপডেটেড। জাস্ট এখানে ক্লিক করুন।

Source link

Comments

comments