Category Archives: ওপার বাংলা

মেয়াদ উত্তীর্ণ বিএনপির কমিটি বাতিলের দাবিতে জামালপুরে ঝাড়ু হাতে বিক্ষোভ

রকিব হাসান নয়ন, জামালপুর- মেয়াদ উত্তীর্ণ জেলা বিএনপির কমিটি বাতিলের দাবিতে ঝাড়ু হাতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে জামালপুর জেলা বিএনপির একাংশ।

সোমবার দুপুরে শহরের কালীঘাট এলাকা থেকে জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি আমজাদ হোসেনের নেতৃত্বে ঝাড়ু হাতে বিক্ষোভ মিছিলটি বের হয়। বিক্ষোভ মিছিলটি শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে দয়াময়ী মোড়ে গিয়ে শেষ হয়েছে।

মিছিলে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির জামালপুর জেলা শাখার সভাপতি ফরিদুল কবির তালুকদার শামীম ও সাধারণ সম্পাদক এড.শাহ মো.ওয়ারেছ আলী মামুনের অগণতান্ত্রিক কায়দায় দলকে ধ্বংস ও মেয়াদ উত্তীর্ণ জেলা বিএনপির কমিটি বাতিলের দাবিতে শ্লোগান দেন।

মিছিল শেষে দয়াময়ী মোড়ে জেলা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম আহাম্মেদের সঞ্চলনায় বক্তব্য দেন জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি আমজাদ হোসেন। পরে মিছিলকারীরা দয়াময়ী মোড়ে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এড.শাহ মো.ওয়ারেছ আলী মামুনের কুশপুত্তলিকা দাহ করে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সাবেক স্বাস্থ্য উপমন্ত্রী সিরাজুল হক, কৃষক দলের নেতা আব্দুস সাত্তার, শ্রমিক নেতা শাহীন, যুব নেতা জিয়াউল হক জিয়া, রেজাউল করিম নিলু প্রমুখ।

কোটালীপাড়ায় রাস্তা নির্মাণে বাঁধা, এলাকাবাসীর ক্ষোভ

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি: গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলায় রাস্তা নির্মাণ কাজে বাঁধা দেওয়ায় এলাকাবাসীর মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। অপরদিকে, নিধার্রিত সময়ের মধ্যে এ রাস্তা নিমার্ণ করা না হলে বরাদ্ধকৃত অর্থ ফেরত যাবে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান।

জানাগেছে, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ প্রকল্পের আওতায় উপজেলার কলাবাড়ি ইউনিয়নের সাবেক মেম্বার চিত্ত সরকারের বাড়ি হইতে উপেন্দ্রনাথ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় হয়ে রাজৈর-কোটালীপাড়া সড়ক পর্যন্ত ১৬শত মিটার মাটির রাস্তা নির্মাণের জন্য ৬৫ লক্ষ টাকা বরাদ্ধ দেওয়া হয়েছে।

গত কয়েকদিন আগে এ রাস্তা নির্মাণের কাজ শুরু হয়। কিন্তু চিত্ত সরকারের বাড়ি হইতে উত্তর দিকে ৩শত মিটার রাস্তা নির্মাণের পরে স্থানীয় নিরোদ বালা ও রনদা বালা এই রাস্তা নির্মাণ কাজে বাঁধা প্রদান করেন। তাদের এই বাঁধার ফলে রাস্তাটি নির্মাণে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। যার ফলে এলাকাবাসীর মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

কলাবাড়ি ইউনিয়নের সাবেক মেম্বার চিত্ত সরকার বলেন, এই রাস্তাটি নির্মাণ হলে এ এলাকার প্রায় ৫/৭টি গ্রামের কয়েক হাজার লোকের স্কুল, কলেজ, হাট-বাজারে যেতে সুবিধা হবে। কিন্তু আমাদের এলাকার নিরোদ বালা ও রনদা বালা রাস্তা নির্মাণে বাঁধা দেওয়ায় আমাদের অনেক দিনের স্বপ্ন মুখ থুবড়ে পরেছে। আমরা চাই দ্রুততম সময়ের মধ্যে যেন এই রাস্তাটি নির্মাণ করা হয়।

কলাবাড়ি রাধাকান্ত উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী অনামিকা রায় ও বৃষ্টি বিশ্বাস বলেন, বর্ষা মৌসুমে আমাদের নৌকা নিয়ে স্কুলে যেতে হয়। যার ফলে আমরা সময় মতো স্কুলে যেতে পারি না। এই রাস্তাটি নির্মাণ হলে আমাদের আর নৌকা নিয়ে স্কুলে যেতে হবে না। আমরা সঠিক সময়ে স্কুলে যেতে পারবো।

কলাবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাইকেল ওয়া বলেন, নিরোদ বালা ও রনদা বালা অবৈধভাবে এই রাস্তা নির্মাণ কাজে বাঁধা দিয়েছেন। তারা যে স্থানে নিজেদের জায়গা দাবি করে এই রাস্তা নির্মাণে বাঁধা দিয়েছেন সেটি সরকারি জায়গা। আমি বিষয়টি লিখিতভাবে উপজেলা নির্বাহী মহোদয়কে জানিয়েছি। যদি দ্রুত সময়ের মধ্যে রাস্তাটি নির্মাণ করা না তাহলে বরাদ্দকৃত অর্থ ফেরত চলে যাবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার এস এম মাহফুজুর রহমান বলেন, আমি বিষয়টি দেখার জন্য সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের তহসিলদারকে নির্দেশ দিয়েছি। তহসিলদার জায়গা মেপে আমাকে জানাবেন। আমরা দ্রুত সময়ের মধ্যে রাস্তা নির্মাণের ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

মধ্য প্রাচ্যের সবজি স্কোয়াশ চাষ হচ্ছে এখন নওগাঁর মাটিতে

নাজমুল হক নাহিদ, নওগাঁ প্রতিনিধি: উত্তর আমেরিকা ও মধ্য প্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে চাষকৃত ফসল স্কোয়াশ বাংলাদেশের মাটিতে চাষ করে ব্যাপক সফল হয়েছেন উত্তরাঞ্চলের শষ্য ভান্ডার হিসেবে পরিচিত নওগাঁর আত্রাই উপজেলার কালিকাপুর ইউনিয়নের রায়পুর গ্রামের বাবু ও শাহাগোলা ইউনিয়নের ভবানীপুর গ্রামের কৃষক নাহিদ হোসেন।

স্কোয়াশ সবজি এই প্রথম বারের মতো এ উপজেলায় চাষ হচ্ছে। শীতকালীন এই সবজি আবাদ করে মাত্র তিন মাসেই লাভের আশা করছে কৃষক। এর সাথে সাথে উপজেলার কৃষিতে যোগ হলো আরেকটি নতুুুন সবজি স্কোয়াশ।

স্কোয়াশ কুমড়ার একটি ইউরোপীয় জাত, যা খেতে অত্যন্ত সুস্বাদু এবং ডায়াবেটিস, ক্যানসার ও হার্টের রোগীদের জন্য খুবই উপকারী। স্কোয়াশ মূলত উত্তর আমেরিকা ও মধ্য প্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে চাষ হয়ে থাকে। স্কোয়াশ অনেকটা দেখতে শশা আকৃতির। এটি শশার মতো লম্বা হলেও রং মিষ্টি কুমড়োর মতো। উচ্চ ফলনশীল জাতের এ সবজি ভাজি, মাছ ও মাংসের তরকারিতে রান্নার উপযোগী, সুস্বাদু ও পুষ্টিকর। এছাড়া এটি সালাদ হিসেবেও খাওয়া যায়।

এ নিয়ে কৃষক বাবু ও নাহিদ হোসেনে বলেন, স্কোয়াশ আবাদের সুবিধা হচ্ছে অল্প সময়ে এবং সাশ্রয়ী মূল্যে ফসল উৎপাদন করা যায়। তাছাড়া এক বিঘা জমিতে যে পরিমাণ কুমড়া লাগানো যায় তার চেয়ে দ্বিগুণ স্কোয়াশ লাগানো সম্ভব। পূর্ণবয়স্ক একটি স্কোয়াশ গাছ অল্প জায়গা দখল করে। স্কোয়াশের একেকটি গাছের গোড়ায় ৮ থেকে ১২টি পর্যন্ত ফল বের হয়। কয়েকদিনের মধ্যেই খাওয়ার উপযোগী হয় এটি। বাজারে প্রতি কেজি স্কোয়াশ বিক্রি হচ্ছে ৪০ টাকা। স্কোয়াশ দেখতে অনেকটাই লাউ আকৃতির। উচ্চ ফলনশীল এই জাতের ফসল ভাজি, মাছ ও মাংসের সঙ্গে রান্না করে খাওয়া যায়। এটা খেতেও সুস্বাদু। বিশেষ করে চাইনিজ রেস্টুরেন্টে সবজি এবং সালাদ হিসেবে এর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে।

দেশের উচ্চ ফলনশীল ফসলের চেয়েও কয়েকগুণ বেশি উৎপাদন করে সাড়া ফেলে দিয়েছেন আত্রাই উপজেলার ভবানীপুরের এ কৃষক। তিন মাসে এ ফসল আবাদ করে তিনি খরচ বাদে হাজার হাজার টাকা আয় করার আশা করছেন।

বাজার থেকে স্কোয়াশ সবজির বীজ সংগ্রহ করে পরীক্ষামূলকভাবে সামান্য জমিতে রোপন করেন কৃষক বাবু ও নাহিদ হোসেন। ওই আবাদে সফল হন তারা দু’জনই। পরবর্তীতে তারা দু’জনই বড় পরিসরে স্কোয়াশের চাষ করবেন বলে ভাবছেন।

এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ কেএম কাউছার হোসেন বলেন, স্কোয়াশ সবজি জাতীয় ফসল। যা কুমড়া ও ধুন্দল জাতীয় ফসলের ক্রস। দেশের প্রচলিত কোনও সবজির এমন উৎপাদন ক্ষমতা নেই। তাই এই স্কোয়াশ চাষ সম্প্রসারণ করা গেলে কৃষি অর্থনীতিতে বিরাট পরিবর্তন আসবে বলে মনে করছেন তিনি।
মোবাইল:- ০১৭১৭-৭৯৭৯৩১

যশোর সীমান্তে ১২ লাখ টাকার ফেনসিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

মহসিন মিলন, বেনাপোল প্রতিনিধি- যশোরের শার্শা সীমান্তে ১,১৯০ বোতল ফেনসিডিলসহ এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে বিজিবি।

সোমবার দুপুরে শার্শার সালকোনা সীমান্ত থেকে ১,১৯০ বোতল ফেনসিডিলসহ শাহীন হোসেন (৩৫) নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করে বিজিবি। শাহীন রঘুনাথপুর গ্রামের ইয়ানুর রহমানের ছেলে।

৪৯ বিজিবির কমান্ডিং অফিসার লে. কর্ণেল সেলিম রেজা জানান, মাদক ব্যবসায়ীরা ভারত থেকে বিপুল পরিমাণ ফেনসিডিল এনে সালকোনা সীমান্তের নারকেল বাড়িয়া গ্রামে অবস্থান করছে এমন ধরণের গোপন সংবাদ পেয়ে বিজিবির একটি টহল দল সেখানে অভিযান চালিয়ে বস্তা ভর্তি ১১৯০ বোতল ফেনসিডিল জব্দ করতে সক্ষম হয়।

পরে ফেনসিডিলের মালিক শাহীন হোসেনকে আটক করা হয়। আটক ফেনিসিডিলের মূল্য ১১ লাখ ৯০ হাজার টাকা বলে বিজিবি জানায়।

আটক শাহীনকে শার্শা থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা হয়েছে।

শাহজাদপুরে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মকর্তাদের অর্থায়নে পাকা ঘর পাচ্ছে প্রতিবন্ধী দম্পতি

রাজিব আহমেদ রাসেল, শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি: আর-ই-বি চেয়ারম্যানের দিক নির্দেশানায় সিরাজগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর অধীনস্থ সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অর্থায়নে পাকা ঘর পাচ্ছে, শাহজাদপুর উপজেলার হাবিবুল্লাহনগর ইউনিয়নের হামলাকোলা গ্রামের মৃত ইউনুছ আলীর ছেলে প্রতিবন্ধী নুর ইসলাম।

শাহজাদপুর জোনাল অফিসের এন ফোর্সমেন্ট কো-ওডিনেটর মো. সাইদুল ইসলাম বকেয়া বিদ্যুৎ বিলের জন্য নুর ইসলামের বাড়িতে আসে। তার এই দুরাবস্থার বিষয়টি জেনে তিনি শাহজাদপুর জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) প্রকৌশলী মো. মিজানুর রহমানকে অবহিত করেন।

তৎক্ষণাৎ ডিজিএম মিজানুর রহমান সিরাজগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর জেনারেল ম্যানেজার রমেন্দ্র চন্দ্র রায়কে অবগত করেন। সেদিনই রমে্ন্দ্র চন্দ্র রায় শাহজাদপুর এসে ডিজিএম মিজানুর রহমান ও অন্যান্য কর্মকর্তাদের সাথে প্রতিবন্ধী নুর ইসলামের বাড়ি পরিদর্শনে আসেন।

নুর ইসলামের দুরাবস্থা সরেজমিনে পরিদর্শন করে কর্মকর্তা কর্মচারীদের অর্থায়নে একটি পাকা ঘর দেওয়ার নির্দেশনা দেন। এরপরই শুরু হয় প্রতিবন্ধী বাড়ী পাকা ঘর নির্মাণের কাজ।

আজ সোমবার (২৫ জানুয়ারি) দুপুরে ঘর নির্মাণ কাজের তদারকি করতে উপস্থিত হন শাহজাদপুর জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজর প্রকৌশলী মো. মিজানুর রহমান।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, শাহজাদপুর জোনাল অফিসের এন ফোর্সমেন্ট কো-ওডিনেটর মো. সাইদুল ইসলাম, শাহজাদপুর জোনাল অফিসের সহকারী প্লান্ট হিসাব রক্ষক মো. মাসুদ রানা পারভেজ, হাবিবুল্লাহনগর ইউপির সংরক্ষিত ৪ ,৫, ৬ নং ওয়ার্ডে মহিলা মেম্বার মোছা. মঞ্জুয়ারা খাতুন, সাংবাদিক রাজিব আহমেদ রাসেল, রাসেল সরকার, মাহফুজুর রহমান মিলন ও স্বেচ্ছাসেবক ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল্লাহ আল-মাহমুদ প্রমূখ।

এর আগে নুর ইসলামের বাড়িতে গিয়ে সাংবাদিকরা জানতে পারেন যে, ঘরে চাউল না থাকায় দুপুর পর্যন্ত নুর ইসলামের বাড়ির চুলায় আগুন জলেনি। তৎক্ষণাৎ সাংবাদিক রাজিব আহমেদ ৫০ কেজি (বস্তা) চাউল প্রতিবন্ধী দম্পতির হাতে তুলে দেয়।

উল্লেখ্য, নুর ইসলাম ও তার শাহেদা খাতুন শারীরিক প্রতিবন্ধী। এক ছেলে নিয়ে তারা উপজেলার হামলাকোলা গ্রামের বেইলী ব্রীজের পাশে বসবাস করেন।

দীর্ঘদিন প্রতিবন্ধী নুর ইসলাম অন্যের বাড়িতে তাঁতের জোগাল দিতো। বয়সের ভারে সেটাও আর সম্ভব না হওয়ায় ভিক্ষাবৃত্তির পথ বেছে নেয়। তার ৮ বছরের ছেলে অন্যের বাড়িতে শুধুমাত্র খাদ্যের বিনিময়ে কাজ করে জীবন চালায়।

ওয়ারিশ সূত্রে পাওয়া ০.০৫ (পাঁচ) শতক জায়গার উপরে এক কোণে একটি ছাপড়া ঘরে তার বসবাস। তার বাড়িতে এখন দ্রুত গতিতে নির্মাণ হচ্ছে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ কর্তৃক দেওয়া পাঁকা ঘর। ২০ ফুট প্রস্থ ও ২২ ফুট দৈর্ঘ্যের দুই কক্ষ বিশিষ্ট এই ঘরটির সাথে সংযোজিত থাকছে দুটি রুম, একটি বাথরুম, একটি কিচেন রুম ও সামনে খোলা বারান্দা।

নন্দীগ্রামে আন্তজেলা ডাকাত দলের সদস্য গ্রেফতার

মনিরুজ্জামান মনির, নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি- বগুড়ার নন্দীগ্রামে আন্তজেলা ডাতাক দলের সদস্য কুখ্যাত ডাকাত হেলাল হোসেন হেলাঞ্চি (৫০) কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার (২৫ জানুয়ারি) দুপুরে নন্দীগ্রাম থানা থেকে তাকে বগুড়া কোর্ট হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

হেলাঞ্চি উপজেলার বুড়ইল ইউনিয়নের রিধইল গ্রামের গমের উদ্দিন মুন্সির ছেলে। তার নামে থানায় নয় টি জিআর মামলার ওয়ারেন্ট ছিলো। এরমধ্যে সে ১ টি মামলায় ৬ মাসের সাজাপ্রাপ্ত আসামী। দীর্ঘদিন ধরে সে পালিয়ে ছিলো।

এরপূর্বে রবিবার (২৪ জানুয়ারি) থানার অফিসার ইনচার্জ কামরুল ইসলামের নির্দেশনায় থানার এসআই চাঁন মিয়া ও এএসআই আবুল কালাম আজাদ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে রাজধানীর মিরপুর এলাকা অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে।

নন্দীগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুল ইসলাম গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সৈয়দপুর-রংপুর মহাসড়ক থেকে অজ্ঞাত লাশ উদ্ধার

সাইফুল ইসলাম মুকুল, রংপুর- রংপুরের সৈয়দপুর-রংপুর মহাসড়ক থেকে অজ্ঞাত পরিচয়ে এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার সকালে ওই সড়কের তারাগঞ্জ উপজেলার জিগাতলা এলাকা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ ও স্থানীয়দের ধারণা, কুয়াশাচ্ছন্ন আবহাওয়ায় সড়ক পারাপারের সময় দুর্ঘটনার শিকার হন ওই ব্যক্তি। এখন পর্যন্ত নিহতের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

তারাগঞ্জ হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কেরামত আলী বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, সকালে কুয়াশাচ্ছন্ন সড়কে এক ব্যক্তির মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

এদিকে সোমবার ভোরে রংপুরের উত্তম হাজিরহাট সড়কের হাফেজিয়া মাদরাসার কাছে ঘন কুয়াশার কারণে ট্রাক-কাভার্ডভ্যানসহ বেশ কয়েকটি যানবাহনের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে দুমড়ে-মুচড়ে যায় গাড়ির বিভিন্ন অংশ।

এ দুর্ঘটনায় তিনজন ট্রাকচালক ও একজন মোটরসাইকেল আরোহী গুরুতর আহত হন। তাদের রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এর মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন মেট্রোপলিটন হাজিরহাট থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) রাজেশ কুমার চক্রবর্তী।

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় ট্রাক-মোটরসাইকেল মুখোমুখি সংঘর্ষ: ২ স্কুলছাত্র নিহত

হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুর প্রতিনিধি: ফরিদপুরের ভাঙ্গায় ট্রাকের সাথে মোটর সাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্যে ২ স্কুলছাত্র নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় অপর লাবলু নামের অপর ১ ব্যাক্তি আহত হন।

সোমবার (২৫ জানুয়ারী) বেলা ১১টার দিকে ফরিদপুর-ভাঙ্গা-বরিশাল মহাসড়কের উপজেলার হামেরদী নামক স্থানে অজ্ঞাত একটি ট্রাক ও ২টি মোটরসাইকেল মুখোমুখি সংঘর্যের ঘটনা ঘটে। এতে এক মোটর সাইকেলে থাকা ২ স্কুল ছাত্র ঘটনাস্থলেই নিহত ও অন্য সাইকেলের আরোহী ডাক্তার লাবলু নামের এক ব্যক্তি গুরুত্বর আহত হয়েছে।

নিহতরা হলেন- উপজেলার পুর্বসদরদী গ্রামের আবুল খায়েরের পুত্র সাকিব (১৫) ও নাজিরপুর গ্রামের ছানোয়ার মুন্সীর পুত্র শাহিন মুন্সী (১৬)। তারা ব্রাক্ষণকান্দা হাইস্কুলের ৮ম শ্রেণীর ছাত্র ছিল। খবর পেয়ে হাইওয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ঘটনা স্থলে গিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখে। ঘাতক ট্রাকটি পালিয়ে গেছে।

ভাঙ্গা হাইওয়ে থানার ওসি মোঃ ওমর ফারুক জানান, সাকিব ও শাহিন মুন্সী একই মটরসাইকেলে চড়ে পুকুরিয়া থেকে ভাঙ্গার দিকে আসছিল। পথিমধ্যে ঘটনাস্থলে পৌঁছালে ফরিদপুরগামী অজ্ঞাত একটি ট্রাক তাদেরকে চাপা দিলে এ দুর্ঘটনাটি ঘটে।

এসময়ে পিছনে থাকা আর একটি মোটরসাইকেলের চালক ঢাকা ডেন্টাল কলেজের ডাক্তার ঝালকাটির লাবলু গুরুত্বর আহত হয়েছে। তাকে ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানন্তর করা হয়েছে। তবে ঘাতক ট্রাকটি আটকের চেষ্টা করা হচ্ছে।

ভোট দখলে জামাত শিবিরে জঙ্গিদের জড়ো করছে বিএনপি, অভিযোগ আওয়ামি লিগের

সুকুমার সরকার: করোনা আবহে কয়েক দফায় পুরভোট চলছে বাংলাদেশে (Bangladesh)। নির্বাচন ঘিরে ঘটেছে হিংসাত্মক ঘটনাও। যথারীতি একে অপরের বিরুদ্ধে তোপ দাগছেন শাসক-বিরোধী উভয় পক্ষই। এহেন পরিস্থিতিতে দেশের শাসকদল আওয়ামি লিগের অভিযোগ, নির্বাচন জিততে জঙ্গিদের মদত নিচ্ছে খালেদা জিয়ার বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট পার্টি (বিএনপি)।
[আরও পড়ুন: রোহিঙ্গাদের দ্রুত দেশে ফিরিয়ে আনা হবে, বাংলাদেশকে স্বস্তি দিয়ে বড় ঘোষণা মায়ানমারের]
রবিবার এক সংবাদ সম্মেলনে চট্টগ্রামের নগর আওয়ামি লিগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন অভিযোগ করেন, বিএনপি তাদের মিত্র জামাত শিবিরের সন্ত্রাসীদের চট্টগ্রামে জড়ো করছে। বিরোধী দলের সমালোচনা করে তিনি বলেন, “কয়েকটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া চট্টগ্রামে নির্বাচনের পরিবেশ এখনও ভাল। আমারা জানতে পেরেছি যে হিংসা ছড়াতে বিএনপি তাদের মিত্র জামাত শিবির ও দলের সশস্ত্র ক্যাডার, দাগি আসামিদের নগরে জড়ো করছে। যারা অতীতে পেট্রল বোমা ছুঁড়েছে, সেই সন্ত্রাসীদের জড়ো করে নির্বাচনের আগে ভীতিকর পরিবেশ সৃষ্টি করছে। সন্ত্রাসী কার্যক্রম করে চট্টগ্রামকে আতঙ্কের শহরে পরিণত করার চেষ্টা করছে যাতে নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করা যায়। আর সেই দোষ সরকারের ওপর চাপিয়ে দেওয়া যায়।” বিরোধীদের হুঁশিয়ারি দিয়ে হোসেন আরও বলেন, “চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামি লিগ এত দুর্বল নয় যে বাইরে থেকে লোক নিয়ে আসতে হবে। চট্টগ্রামের মানুষ মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে, নৌকার পক্ষে। নৌকা দেখলে মানুষ বসে থাকতে পারে না।”
উল্লেখ্য, ডিসেম্বরের ২৮ তারিখ থেকে বাংলাদেশে শুরু হয়েছে পুর নির্বাচন। চলবে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। ইতিমধ্যেই প্রথম দু’দফার নির্বাচন শেষ হয়েছে। প্রথম দফার ভোটগ্রহণ পর্ব তুলনামূলক শান্তিপূর্ণভাবে মিটলেও ১৬ জানুয়ারি দ্বিতীয় দফায় ভোটগ্রহণ শুরুর আগেই অশান্তি শুরু হয়। দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রতিপক্ষের উপর হামলা, পেট্রল বোমা নিক্ষেপ-সহ নানা ঘটনায় ওইসব এলাকার প্রার্থী, কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে টানটান উত্তেজনা রয়েছে। ভোটের সময় সংঘর্ষের বিষয় মাথায় রেখেই বিপুল সংখ্যায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রগুলোয় বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।
[আরও পড়ুন: মুজিববর্ষকে স্মরণীয় করার উদ্যোগ, ৭০ হাজার গৃহহীনকে বাড়ি উপহার দিল হাসিনা সরকার]

Source link

হিলিতে সড়ক দুর্ঘটনায় চাচা-ভাতিজা নিহত

মোঃ আব্দুল আজিজ, হিলি প্রতিনিধি- দিনাজপুরের হিলিতে সড়ক দুর্ঘটনায় দুইজন মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন। নিহতরা সম্পর্কে চাচা ভাতিজা। সোমবার (২৫ জানুয়ারি) দুপুরে উপজেলার বোয়ালদাড় ইউনিয়নের নওনাপাড়া নামক স্থানে দুর্ঘটনা ঘটে।

হাকিমপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফেরদৌস ওয়াহিদ জানান, দুপুরে মোটরসাইকেল যোগে দুইজন আরোহী হিলি থেকে বোয়ালদাড়ের দিকে যাচ্ছিল। এমন সময় বিপরীত দিক দিয়ে আসা একটি পিকআপ ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলেই দুই মোটরসাইকেল আরোহী মারা যান।

খবর পেয়ে হাকিমপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ দুটিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন। বর্তমানে ওই সড়কে যান চলাচলা স্বাভাবিক রয়েছে। আইনি প্রক্রিয়াই তাদের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

নিহতরা হলেন, রংপুর জেলার বদরগঞ্জ উপজেলার মোকছেদপুর বানিয়াপাড়া গ্রামের জামাল উদ্দীনের ছেলে নজরুল ইসলাম (৫০) এবং একই গ্রামের সেকেন্দার আলীর ছেলে সাখাওয়াত হোসেন (২৪)। তারা দুইজন সম্পর্কে চাচা, ভাতিজা।