Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: August 1, 2020 6:59 pm|    Updated: August 1, 2020 7:01 pm
সারাবাংলা ডেস্ক: আসছে রাখিবন্ধন (Raksha Bandhan) উৎসব। তবে চলতি বছর করোনার কোপে ম্লান সমস্ত উৎসবের জৌলুস। তাতে কী? আনন্দ তো অন্তরের। তার জন্য কোনও বাধাই বাধা নয়। সেই আনন্দে মেতে উঠতেই করোনা আবহে রাখিবন্ধন উৎসব একটু অন্যভাবে পালনের পরিকল্পনা করেছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘সংবেদন’। এবছর সংগঠনের সদস্যরা গাছ-ভাইদের রাখি বেঁধে দেবে। অতিথি এবার বৃক্ষকুল। আমগাছ, জামগাছ, নিম গাছেদের সারিতে এবার হবে রাখিবন্ধন। রবিবার বিকেলে শোভাবাজার লঞ্চঘাটে অনন্য রাখিবন্ধনের সাক্ষী থাকবেন সকলে।‘প্রাণের জন্য রাখি’ – এবছর ‘সংবেদন’ আয়োজিত রাখিবন্ধন অনুষ্ঠানের নাম এটাই। আমন্ত্রণ পত্রে স্পষ্ট লেখা – প্রধান অতিথি থেকে বিশেষ অতিথি, সকলেই গাছ। দর্শক আসনেও শুধুমাত্র গাছ। তাদেরই জানানো হবে যোদ্ধার সম্মান। এহেন আমন্ত্রণ পত্রও বেশ নজর কেড়েছে। আসলে ‘সংবেদন’-এর সদস্যরা মনে করেন, পরিবেশ ভাল থাকলেই ভাল থাকবে মানুষ, বাঁচবে মানব সভ্যতা। আর গাছ বাঁচানো সভ্যতাকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার এক অন্যতম দায়িত্ব। তাই রাখিবন্ধনের পবিত্র দিনে তাঁরা গাছের গায়ে রাখি বেঁধেই তা রক্ষার প্রতিশ্রুতি গ্রহণ করতে চান। সত্যি! এ এক অভিনব উদ্যোগ।[আরও পড়ুন: করোনা কাঁটা, ভাল কাজ করেও ব্যাঘ্র দিবসে পুরস্কার থেকে ‘বঞ্চিত’ সুন্দরবনের ২ বনকর্মী]সমাজের বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন ছোটদের নিয়ে তৈরি হয়েছে ‘সংবেদন’। স্পষ্টতই অবহেলিত কচিকাঁচাদের সংবেদনশীলতাকে ছোঁয়ার মহান উদ্দেশে তার যাত্রা। তাঁদের পথচলাও একটু অন্য ধরনের। যা চিরাচরিত ধারা থেকে ভিন্ন। কারণ, ‘সংবেদন’ যাদের জন্য কাজ করে, তারা নিজেরাই তো বিশেষ। করোনার ভয়ে আর লকডাউনের বাস্তবতা ঠিকমতো বুঝতে পারে না বলেই ঘরবন্দি থাকতে তাদের মন চায় না একেবারেই। আর এই জায়গা দাঁড়িয়ে নিরাপদে ওদের আনন্দে শামিল করা ‘সংবেদন’-এর কাছে একটা চ্যালেঞ্জ ছিল। কিন্তু রাখিবন্ধন উপলক্ষে একেবারে অন্য ধারার এই পরিকল্পনা নিশ্চিতভাবেই ওই বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন কচিকাচাদের হৃদয়ে আনন্দধারা বইয়ে দেবে বলে আশা সংগঠনটির।[আরও পড়ুন: বিক্রি করা যাবে না জিনিসপত্র! করোনা রোগীর পরিবারের জন্য ‘ফতোয়া’ জারি তৃণমূল নেতার]

Source link

Comments

comments