Published by: Sulaya Singha |    Posted: December 1, 2020 10:34 pm|    Updated: December 1, 2020 10:34 pm
অর্ণব আইচ: কালো টাকা সাদা করার মামলায় এবার প্রাক্তন এক আয়কর কর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলেন লালবাজারের (Lal Bazar) গোয়েন্দারা। মঙ্গলবার আয়কর দপ্তরের প্রাক্তন প্রিন্সিপাল চিফ কমিশনার বিশ্বনাথ ঝাকে তলব করে কলকাতা পুলিশ। [আরও পড়ুন: অক্সফোর্ডের বিতর্কসভায় বাংলার উন্নয়ন, বুধবার ভিডিও কনফারেন্সে পড়ুয়াদের মুখোমুখি মমতা]তিন বছর আগে মধ্য কলকাতার হেয়ার স্ট্রিট থানায় হওয়া একটি মামলায় সম্প্রতি ব্যবসায়ী গোবিন্দ আগরওয়ালকে গ্রেপ্তার করে লালবাজারে গোয়েন্দা বিভাগের জালিয়াতি দমন শাখা। আগরওয়ালের বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল, তিনি নিজেকে চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট বলে পরিচয় দিয়ে ভুয়ো সংস্থার মাধ্যমে অনেকের কালো টাকা সাদা করেছেন। তাঁর অফিস ও বাড়িতে তল্লাশি করে গোয়েন্দারা আয়কর সংক্রান্ত বেশ কিছু নথি উদ্ধার করেন। এই মামলায় অন্য এক আয়কর কর্তা মূল অভিযুক্ত। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জানতে পেরেছিল যে, আয়কর কর্তার প্রচুর টাকা গোবিন্দ আগরওয়ালের বিভিন্ন ভুয়া সংস্থায় লগ্নি করা হয়েছে। পুলিশের অভিযোগ, আগরওয়ালের কাছ থেকে উদ্ধার হওয়া কিছু নথিতে ওই আয়কর কর্তার সই ছিল। গত সপ্তাহে তাঁকে পুলিশ নোটিস দিয়ে লালবাজারের তলব করে। তখন তিনি পদে ছিলেন। তিনদিন আগে অবসর গ্রহণ করেন।এদিন দুপুরে তিনি লালবাজারে আসেন। তাঁর কাছ থেকে পুলিশ জানতে চায়, তার সই করা নথি ব্যবসায়ী গোবিন্দ আগরওয়ালের হাতে কীভাবে গেল, তিনি ওই ব্যবসায়ীকে চিনতেন কি না। যদি নথি খোয়া গিয়ে থাকে, তবে তিনি এই ব্যাপারে অভিযোগ জানিয়েছিলেন কি না, তাও তাঁর কাছ থেকে জানতে চাওয়া হয়। পুলিশের সূত্র জানিয়েছে, গোবিন্দর সঙ্গে যোগাযোগের কথা সরাসরি স্বীকার করেননি তিনি। তাকে লালবাজারে ফের তলব করা হতে পারে বলে জানিয়েছে পুলিশ।[আরও পড়ুন: মাদ্রাসা শিক্ষকদের প্রতিবাদ মিছিলে পুলিশের লাঠিচার্জের অভিযোগ, রণক্ষেত্র ধর্মতলা]উল্লেখ্য, গরু পাচার মামলায় মূল অভিযুক্ত এনামুল ও কয়লা পাচারে অভিযুক্ত লালার সঙ্গে গোবিন্দের যোগাযোগ রয়েছে কি না, সে বিষয়টিও খতিয়ে দেখছেন গোয়েন্দারা। এ বিষয়ে প্রমাণ জোগাড়ের চেষ্টা করছেন তাঁরা।

Source link

Comments

comments