Tag Archives: Beauty tips in bengali

Salon Safety after covid: পার্লারের প্রথম পাঠ, যা যা জানা জরুরি – things you should keep in mind before your first visit to the beauty parlour)

হাইলাইটসঅনেক পার্লারেই এখন ‘সেফটি কিট’ দেওয়ার জন্য অতিরিক্ত টাকা নিচ্ছে। এই কিট বা সাবধানতা অবলম্বন করার দায়িত্ব কিন্তু পার্লারেরই। তাই এই খাতে অতিরিক্ত টাকা চাইলে প্রশ্ন তুলুনকেনাকাটি করা, রেস্তোরাঁয় খাওয়ার মতো সাল্যোঁতে যাওয়াও কিন্তু এখন অনেকটাই স্বাভাবিক হয়ে এসেছে। হেয়ারকাট থেকে পেডিকিওর ম্যানিকিওর-সব আবার চলছে আগের মতো। কিন্তু আপনি ক্রেতা হিসেবে কী কী সুবিধে পাওয়ার আশা রাখতে পারেন? থাকলো তারই কিছু টিপসক্রেতা আকর্ষণের জন্য এখন অনেক সাল্যোঁই ‘হ্যাপি ডে’ ঘোষণা করছে। সপ্তাহের এই বিশেষ দিনে থাকছে নানা রকম ছাড়। সেই নির্দিষ্ট দিনের খবর রাখুন। অন্য দিনের থেকে অতিরিক্ত কী কী ছাড় পাচ্ছেন জেনে নিন। আর অন্য দিনের পরিবর্তে সেই বিশেষ দিনই ধার্য করুন রূপচর্চার জন্য।আলাদা আলাদা পরিষেবা নিতে গেলে অনেক সময় খরচ বেশি পড়ে। সেক্ষেত্রে প্যাকেজের কথা ভাবতে পারেন। এতে খরচ কম পড়বে। অর্থাৎ ফেসিয়াল, ওয়াক্সিং, মাসাজ আলাদা করে না করিয়ে একসঙ্গে প্যাকেজ নিন। টাকা বাঁচাতে পারবেন অনায়াসে।অনেক পার্লারেই এখন ‘সেফটি কিট’ দেওয়ার জন্য অতিরিক্ত টাকা নিচ্ছে। এই কিট বা সাবধানতা অবলম্বন করার দায়িত্ব কিন্তু পার্লারেরই। তাই এই খাতে অতিরিক্ত টাকা চাইলে প্রশ্ন তুলুন। বাড়ি থেকে প্রয়োজনীয় কাপড়, তোয়ালে সঙ্গে নিয়ে যেতে পারবেন কিনা জেনে নিন। তা হলে ওই ‘সেফটি কিট’ কেনার জন্য অতিরিক্ত খরচ হবে না আর।মনস্থির করে যান ঠিক কী কী করাবেন পর্লারে। না হলে সেখানকার কর্মীরা নানা রকমের পরামর্শ দিতে থাকবেন। শেষে দেখবেন প্রয়োজন নেই এমন অনেক কিছু করিয়ে ফেলেছেন। বিরাট অঙ্কের টাকা খরচ করে। যা স্থির করে গিয়েছেন তার বাইরে কিছু পরামর্শ দিলে ভদ্রভাবে নাকচ করে দিন।ক্রেতা বাড়াতে এখন অনেক সাল্যোঁ বেশ কিছু বন্ধু বা আত্মীয়দের নম্বর চাইছে। যাঁদের তারা তাদের পরিষেবা সম্বন্ধে জানাতে পারে। পরিবর্তে আপনি পাচ্ছেন কিছু ছাড়। যদি আপনি কারও নম্বর দিতে চান, প্রথমে অবশ্যই তাঁর অনুমতি নিন। না জানিয়ে নম্বর দিয়ে দেওয়া অভদ্রতা। এতে আপনার সঙ্গে সেই বন্ধুর বা পরিবারের সদস্যের সম্পর্ক খারাপ হতে পারে।হেয়ার ট্রিটমেন্ট, কালার, স্মুদনিং, ফেস ট্রিটমেন্ট-এর মতো বেশি অঙ্কের কোনও পরিষেবা নেওয়ার আগে অন্যান্য সাল্যোঁতেও খোঁজ নিন। জানুন কে কত টাকায় কী দিচ্ছে। তারপর ঠিক করুন কোথা থেকে করাবেন।কিছু টাকা বাঁচাতে গিয়ে কখনও পরিচ্ছন্নতার সঙ্গে সমঝোতা করবেন না। দেখে নিন তাপমাত্রা পরীক্ষা, স্যানিটাইজেশন সঠিক ভাবে হচ্ছে কিনা। তারপর সেই পার্লারে কোনও পরিষেবা নিন।এখন কিন্তু বাড়িতেও অনেক ধরনের রূপচর্চার পরিষেবা পাওয়া যায়। পার্লারে যাওয়ার আগে সেগুলোও দেখে নিতে পারেন।এই সময় ডিজিটালের লাইফস্টাইল সংক্রান্ত সব আপডেট এখন টেলিগ্রামে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন এখানে।

Source link

benefits of waxing: রেজার নাকি ওয়াক্সিং! হাতের লোম থেকে আন্ডারআর্মস পরিষ্কারের সঠিক পদ্ধতি জানুন… – 8 benefits of waxing you don’t know in bengali

এই সময় জীবনযাপন ডেস্ক: শরীরের যে কোনও জায়গাতেই অবাঞ্ছিত লোম থাকলে তা মোটেই দেখতে ভালো লাগে না। আর হাত, পা যদি লোমে ভর্তি থাকে তাহলে খুব পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকলেও তা বোঝা দায়। বিশেষত মেয়েদের ক্ষেত্রে। প্রতি মাসে নিয়ম করে মেয়েদের সেই অবাঞ্ছিত লোম তুলে ফেলতেই হয়। তবে এই লোম তুলে ফ্লারও কিন্তু অনেক পদ্ধতি রয়েছে। রেজার, ওয়াক্সিং, হেয়ার রিমুভাল ক্রিম ইত্যাদি। এছাড়াও বেশ কিছু ঘরোয়া টোটকাতেও লোমের গ্রোথ কমানো যায়। সেই সঙ্গে পরিষ্কার রাখা জরুরি আন্ডারআর্মসও। নইলে এখানে ঘামের মাধ্যমে জন্মায় নানা ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া। আন্ডারআর্মসের ত্বক যেমন নরম হয়, তেমনই এখানে কিন্তু লোমও থাকে অনেক বেশি। ফলে প্রতিমাসে যত্ন নিয়ে পরিষ্কার করে ফেলতে হবে এই আন্ডারআর্মস। হাত ও পা পরিষ্কার থাকলে দেখতে ভালো লাগে, তেমনই ত্বকও ভালো থাকে। এছাড়াও হাত-পায়ের ট্যান অনেকটাই উঠে আসে এই ওয়াক্সের মাধ্যমে। যাঁরা নিয়মিত ওয়াক্স করেন তাঁদের চামড়া অনেকদিন পর্যন্ত কুঁটকে যায় না। ওয়াক্স করলে যেহেতু রোমকূপের মুখগুলি খুলে যায়, তাই চর্মরোগ, ফুসকুড়ি এসব হয় না। এছাড়াও ওয়াক্সের বিভিন্ন উপকারিতা রয়েছে। ওয়াক্সিং এর সুবিধাসেভিং, রেজার বা হেয়ার রিমুভাল ক্রিমের বদলে সবসময় ওয়াক্সিং ব্যবহার করুন। বিশেষজ্ঞরা সবসময় বলেন রেজার ব্যবহার না করতে। ওয়াক্সিং নিয়মিত করলে ত্বকে কোনও দাগছোপ থাকে না। এছাড়াও আন্ডারআর্মসে কোনও কালো দাগছোপ পড়ে না। ওয়াক্সিং করলে একসাথে অনেকটা চুল উঠে আসে। এছাড়াও গোড়া থেকে সবটা উঠে আসে। ফলে নিয়মিত করলে অবাঞ্ছিত হেয়ার গ্রোথ কমে যায়। অনেকেই হরমোনের তারতম্যের সমস্যায় ভোগেন। ফলে শরীরে অত্যধিক লোমেরও আধিক্য থেকে যায়। ওয়াক্সিং করলে সেই সমস্যা থাকে না। ত্বকের সুরক্ষায়ওয়াক্সিং মূলত মোম, মধু ও চিনি দিয়ে তারি হয়। আর এই সবকটি উপকরণ ত্বকের পক্ষে খুবই ভালো। ওয়াক্সিং যেমন তাড়াতাড়ি হয় তেমনই কেটে যাওয়ার কোনও ভয় থাকে না। রেজার ব্যবহার করলে চামড়া কেটে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এছাড়াও তা ভালোভাবে না ধুলে সংক্রমণের সম্ভাবনা থেকে যায়। কোথাও যাওয়ার আগে সব মেয়েই ওয়াক্সিং করান। তখন রেজার ব্যবহার করলে সবাই তাড়াহুড়ো করেন, এতে বিপদের সম্ভাবনা থাকে। দক্ষ হাত হওয়া জরুরিওয়াক্সিং বাড়িতেও করা যায়। কিন্তু সাঁলো বা পার্লারে গিয়ে করানোই ভালো। কারণ সবার বাড়িতে প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি থাকে না। এছাড়াও স্ট্রিপস টানার একটা কায়দা আছে। ঠিক করে না তুলতে পারলে লোমও ওঠে না। এমবকী রক্ত চলাচল ব্যহত হতে পারে। এছাড়াও সবসময় ঠান্ডা ওয়েদারে ওয়াক্সিং ভালো হয়। অনেকের বাড়িতেই এসি থাকে না। সেক্ষেত্রে পার্লারই ভালো। ত্বক নরম থাকেআমরা মুখের যেভাবে যত্ন নিই, সেই ভাবে হাত পায়ের যত্ন নেওয়া হয় না। আর হাতে নিয়মিত তেল, সাবান, ক্রিম লাগানোর ফলে রোমকূপ বন্ধ হয়ে যায়। নোংরা বসে। বাইরে বেরনোর সময় মুখে সানস্ক্রিন মাখলেও হাতে লাগানো হয় না। ত্বকে কালো ছোপ থেকে, পোড়া দাগ সবই থাকে। ওয়াক্সিং করলে এসব থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। আর ত্বক নরমও থাকে।মৃত কোশ দূর করেশীত পড়লেই চামড়া সাদা আর খসখসে হয়ে যায়। অনেকেরই মাছের আঁশের মতো চামড়া ওঠে। এই সময় ময়েশ্চারাইজার লাগালে কিছুটা ফল পাওয়া যায়। কিন্তু দীর্ঘমেয়াদি কিছুই হয় না। ভালো করে ধুয়ে, মুছে ময়েশ্চারাইজার লাগানোর চেয়ে শীতকালে দুবার ওয়াক্সিং করিয়ে নেওয়া ভালো। এতে চামড়া ভালো থাকবে। টানটান থাকবে। সেই সঙ্গে বজায় থাকবে আর্দ্রতা। ত্বক ভেতর থেকে চকচকে থাকে। মানসিক শান্তিসুন্দর স্টাইলিশ জামা পড়তে এখন অভ্যস্ত ৪ থেকে ৭০। সুন্দর কাটিং এর ব্লাউজ, প্যান্ট, জামা এসব সবাই পরেন। আর তাই স্লিভলেস ব্লাউড পড়লে যদি আন্ডারআর্মস না করা থাকে তাহলে তা দেখতে যেমন বাজে লাগে, তেমনই পা পরিষ্কার না থাকলে হাঁটুঝুলের কোনও কিছু পরা যায় না। পরলেও মনে দ্বিধা থাকে। মনে হয় সবাই ঠিক আপনার দিকেই তাকিয়ে রয়েছে। এসব ছাড়াও ত্বক যদি নরম, মোলায়েম হয় তাহলে নিজেরও ভালো থাকে। নিজেকে সুন্দর দেখাক এ কে না চায়! তাই যেমন নিয়ম করে ফেসিয়াল করেন তেমনই ওয়াক্সিংও করুন। কেমন ওয়াক্স ব্যবহার করবেনকোল্ড ওয়াক্স ব্যবহার করতে পারেন যদি আপনার ত্বক শুষ্ক প্রকৃতির হয়। কিন্তু সবচেয়ে ভালো হল ব্রাজিলিয়ান ওয়াক্স কিংবা চকোলেট ওয়াক্স। ত্বক যদি সংবেদনশীল হয় তাহলে এই ওয়াক্স খুব ভালো। এই ওয়াক্স যাবতীয় ময়লা, ট্যান সবই তুলে দেয়। এই জাতীয় ওয়াক্সে যে তেল থাকে সেটা ওয়াক্সিংয়ের পরে আপনার ত্বককে কোমল রাখে। চকলেট অয়াক্স সব রকমের ত্বকের জন্য উপযোগী। এমনকি সেনসিটিভ বা স্পর্শকাতর ত্বকেও এই ওয়াক্স খুব কার্যকরী।তবে রেগুলার ওয়াক্সের চেয়ে চকলেট ওয়াক্স একটু দামী। ওয়াক্সিং এর পরওয়াক্সিং এর পর গরম জলে তোয়ালে ভিজিয়ে ভালো করে পা মুছে নিন। আন্ডারআর্মস আর হাত মুছে নিন। প্রথমে অ্যালোভেরা জেল মালিশ করুন। এর পর ১৫ মিনিট অপেক্ষা করে ম্যাসাজ ক্রিম লাগিয়ে নিন। এরপর ৬ ঘন্টা কোনও জল লাগাবেন না।

Source link

Beauty tips in bengali: রান্নাঘরে থাকা সামান্য উপাদানে বাড়িতেই বানিয়ে নিন নাইট ক্রিম – homemade night cream for fairness and glowing skin

হাইলাইটসবাজার চলতি নাইট ক্রিম না কিনে নিজে বানিয়ে নিতে পারেন বাড়িতেই। রান্নাঘরে থাকা সামান্য উপকরণেই তৈরি করা যাবে নাইট ক্রিম। দেখে নিন, সেগুলি কী কীএই সময় জীবনযাপন ডেস্ক: ত্বকের যত্ন নিতে সারাদিন আমরা অনেক কিছুই করি। যেমন ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ধোওয়া, ময়েশ্চারাইজার লাগানো, ফেস স্ক্রাবিং। তবে মুখ পরিষ্কার রাখা খুবই জরুরি। কারণ মুখ নোংরা থাকলে ত্বকে হাওয়া-বাতাস চলাচল করতে পারে না। ফলে নানারকম ত্বকের সমস্যা, ব্রণ, ফুসকুড়ি এসব হতে পারে। এছাড়াও বলিরেখার মতো সমস্যা আসে। অবার বাইরে থেকে ফিরে অনেকেই স্রেফ মুখ ধুয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। এতে কিন্তু ত্বকের ফর প্রভাব পড়ে। যে কারণে নাইট ক্রিম ব্যবহারের উপদেশ দেওয়া হয়। কারণ নাইট ক্রিমের মধ্যে এমন কিছু উপাদান থাকে যা সারা রাত ধরে মুখের ক্ষত পূরণে সাহায্য করে। এছাড়াও বলা হয় শুধুমাত্র রাতে যদি মুখ পরিষ্কার করে নাইট ক্রিম লাগানো যায় তাহলে মুখ খুবই ভালো থাকে। তবে বাজার চলতি নাইট ক্রিম না কিনে নিজে বানিয়ে নিতে পারেন বাড়িতেই। রান্নাঘরে থাকা সামান্য উপকরণেই তৈরি করা যাবে নাইট ক্রিম। দেখে নিন, সেগুলি কী কী। আর এই ক্রিম বানানো কিন্তু মোটেই ঝামেলার নয়। আপেল দিয়ে আপেলের মধ্যে ভিটামিন ভরপুর। আপলের মধ্যে থাকে ভিটামিন এ, বি, সি ও প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। যা স্কিনকে রাখে ফ্রেশ। এছাড়াও ত্বকের বয়স ধরে রাখে। সেই সঙ্গে ত্বক হাইড্রেট থাকে। যা যা লাগছেএকটা বড় আপেলগোলাপ জল ২ চামচ১ চামচ অলিভ তেলএক চামচ হলুদ গুঁড়োপদ্ধতিআপেল ছোট ছোট টুকরো করে ব্লেন্ডারে পেস্ করে নিন। এবার এর মধ্যে অলিভ অয়েল, গোলাপ জল মিশিয়ে নিন ভালো করে। হয়ে গেলে একটু হলুদ দিন। সঙ্গে দারচিনি গুঁড়োও দিতে পারেন। রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে এই পেস্ট মুখে লাগান। সকালে উঠে ধুয়ে ফেলুন। একটা এয়ারটাইট কন্টেনারে ক্রিম স্টোর করে রাখুন। ফ্রিজে রাখবেন। দিন পর্যন্ত ভালো থাকবে। আপেল দিয়ে ক্রিমমধু আর দই দিয়েবাজারের যে কোনও অ্যান্টি এজিং ফেসিয়াল প্যাকের থেকে অনেক বেশি ভালো এই মিশ্রণ। দই ভালো করে ফেটিয়ে নিন। তাতে এক চামচ মধু মিশিয়ে নিন। ব্যাস এবার ভালো করে লাগিয়ে নিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। কোকো পাউডার কোকো পাউডার ও বাটার দিয়েযাঁদের স্কিন ড্রাই তাঁদের জন্য খুব ভালো এই ক্রিম। এর ফলে মুখের ত্বক অনেক নরম হয়। এমনকী মুখ উজ্জ্বলও হয়। যা যা লাগছেআমন্ড তেল- ১ চামচগোলাপ জল- ২ চামচ২ চামচ কোকো বাটার১ চামচ মধুপদ্ধতিএকটা পাত্রে আমন্ড অয়েল, বাটার আর কোকো পাউডার গরম করে মিশিয়ে নিন। এবার সব উপকরণ দিয়ে কিছুক্ষণ ঠান্ডা হতে দিন। এবার একটা এয়ার টাইট কন্টেনারে ভরে ফ্রিজে রেখে দিন। তাহলে ৬ দিন পর্যন্ত ভালো থাকবে। আলিভ দিয়েঅলিভ স্কিনের জন্য খুবই ভালো। প্রাকৃতিক ভাবে অ্যান্টি এজিং এর কাজ করে। ত্বকের আর্দ্রতা বজায় রাখে। যা যা লাগছেঅলিভ তেল- ৪ চামচনারকেল তেল- ৪ চামচভিটামিন ই ক্যাপসুল- ৫টাপদ্ধতিসবকটা উপকরণ ভালো করে মিশিয়ে নিন। এবার রাতে শোওয়ার আগে এই ক্রিম ম্যাসাজ করে নিন। সারা রাত এভাবেই থাকবে। পরের দিন সকালে ধুয়ে নিন। এই ক্রিম ফ্রিজে না রাখলেও ভালো থাকবে। তবে এয়ার টাইট কন্টেনারে রাখবেন। ৩ দিনের বেশি ব্যবহার না করাই ভালো। ফলে ত্বকে আসবে জেল্লা। আরও পড়ুনকফি স্ক্রাবেই উজ্জ্বল হবে ত্বক! জানুন কীভাবেআলু দিয়েমুখ পরিষ্কার রাখতে খুবই সাহায্য করে আলু। এছাড়াও মুখের ফর্সা ভাব বজায় রাখে আলু। আলু দিয়ে বানানো এই নাইট ক্রিমও খুবই কার্যকরী। যা যা লাগছেএকটা বড় আলুনারকেল তেল- ১ চামচলেবুর রস- ২ চামচঅ্যালো ভেরা জেলযেভাবে বানাবেনএকটা আলুর খোসা ছাড়িয়ে সেদ্ধ করে নিন। এবার ব্লেন্ডারে ভালো করে ব্লেন্ড করে নিন। এবার ওর মধ্যে একচামচ নারকেল তেল, ২ চামচ লেবুর রস আর টাটকা অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে ভালো করে ব্লেন্ড করে নিন। এবার এয়ার টাইট কন্টেনারে রেখে দিন ৬ দিন পর্যন্ত। ত্বকের দাগ ছোপ, ডার্ক সার্কেল সবই নিমেষে উধাও হবে এই ক্রিমের গুণেই। এই সময় ডিজিটালের লাইফস্টাইল সংক্রান্ত সব আপডেট এখন টেলিগ্রামে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন এখানে।

Source link