Tag Archives: benefits of carrot juice on skin

carrot juice for acne : মুখে ব্রণ নিয়ে চিন্তিত? গাজরের জুসেই হবে সমস্যার সমাধান!


১) গাজরের জুসের মাস্ক ত্বককে রক্ষা করতে এবং ব্রণ দূর করতে আপনি গাজরের রস সরাসরি আপনার মুখে লাগাতে পারেন। যা যা লাগবে ২ টেবিল চামচ ফ্রেশ গাজরের জুস একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) প্রথমে ক্লিনজার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে শুকিয়ে নিন। খ) এরপর গাজরের রসে কটন প্যাড ভালভাবে ডুবিয়ে এটি গোটা মুখে লাগান। গ) পুরোপুরি না শুকোনো পর্যন্ত মুখে রেখে দিন। ঘ) তারপর ভালভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ঙ) কাঙ্ক্ষিত ফলাফলের জন্য প্রতিদিন এই প্রতিকারটি করুন। ২) গাজরের জুস এবং সি সল্ট সি সল্টে অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া দূর করে এবং ত্বককে পরিষ্কার রাখে। এছাড়াও এটি ত্বককে ময়শ্চারাইজ করতে সহায়তা করে। ব্রণ দূর করতেও সহায়তা করে। যা যা লাগবে ১ টেবিল চামচ গাজরের রস ১ চা চামচ সি সল্ট একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) একটি পাত্রে গাজরের রস এবং সি সল্ট নিয়ে ভালভাবে মেশান। খ) কটন প্যাড ব্যবহার করে আক্রান্ত জায়গায় মিশ্রণটি লাগান। গ) কিছুক্ষণ বৃত্তাকার গতিতে আলতো করে মুখ ম্যাসাজ করুন। ঘ) পুরোপুরি শুকিয়ে না যাওয়া পর্যন্ত এটি আপনার মুখে রেখে দিন। ঙ) এরপর হালকা গরম জলে ধুয়ে ফেলুন। চ) একদিন ছাড়া এই প্রতিকারটি ব্যবহার করুন। ৩) গাজরের জুস এবং অলিভ অয়েল অলিভ অয়েলে এসেনশিয়াল ফ্যাটি অ্যাসিড এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা ত্বককে সতেজ করে। এছাড়াও, এই তেল ত্বককে ময়েশ্চরাইজ করে এবং পুষ্টি যোগায়। যা যা লাগবে ২ টেবিল চামচ গাজরের জুস ১ চা চামচ অলিভ অয়েল একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) একটি বাটিতে দু’টি উপাদান ভালভাবে মিশিয়ে নিন। খ) এরপর কটন প্যাড ব্যবহার করে আক্রান্ত স্থানে মিশ্রণটি প্রয়োগ করুন। গ) ১৫ মিনিট রেখে তারপরে ভালভাবে ধুয়ে ফেলুন। ঘ) এই প্রতিকারটি সপ্তাহে একবার করুন। ত্বকের উজ্জ্বলতা ফেরাতে ব্যবহার করুন লাউয়ের খোসা, দেখুন পদ্ধতি ৪) গাজরের জুস এবং মুলতানি মাটি মুখে ব্রণ হওয়ার অন্যতম কারণ হল তৈলাক্ত ত্বক। অতিরিক্ত তেল ত্বকের ছিদ্রকে আটকে দেয়, যার ফলে সমস্যা হয়। মুলতানি মাটি ত্বকের জন্য অত্যন্ত উপকারি তা আমরা সকলেই জানি। এটি কেবলমাত্র ত্বক থেকে তেল এবং ময়লা শোষণ করে না, পাশাপাশি ত্বকের অয়েল কন্ট্রোল করে নানার সমস্যা, যেমন – ব্ল্যাকহেডস, হোয়াইটহেডস, দাগ এবং ব্রণ কমাতে সহায়তা করে। যা যা লাগবে একটি গাজর পরিমাণমতো মুলতানি মাটি ব্যবহারের পদ্ধতি ক) গাজর থেকে রস বের করে তাতে মুলতানি মাটির গুঁড়ো দিয়ে ভালভাবে মেশান। খ) এবার এই পেস্টটি আপনার মুখে লাগান। গ) ১৫ মিনিট রেখে দিন। ঘ) হালকা গরম জল দিয়ে ভালভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ঙ) কাঙ্ক্ষিত ফলাফলের জন্য এই প্রতিকারটি সপ্তাহে একবার করতে পারেন।

Source link

carrot juice for acne : মুখে ব্রণ নিয়ে চিন্তিত? গাজরের জুসেই হবে সমস্যার সমাধান!


১) গাজরের জুসের মাস্ক ত্বককে রক্ষা করতে এবং ব্রণ দূর করতে আপনি গাজরের রস সরাসরি আপনার মুখে লাগাতে পারেন। যা যা লাগবে ২ টেবিল চামচ ফ্রেশ গাজরের জুস একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) প্রথমে ক্লিনজার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে শুকিয়ে নিন। খ) এরপর গাজরের রসে কটন প্যাড ভালভাবে ডুবিয়ে এটি গোটা মুখে লাগান। গ) পুরোপুরি না শুকোনো পর্যন্ত মুখে রেখে দিন। ঘ) তারপর ভালভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ঙ) কাঙ্ক্ষিত ফলাফলের জন্য প্রতিদিন এই প্রতিকারটি করুন। ২) গাজরের জুস এবং সি সল্ট সি সল্টে অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া দূর করে এবং ত্বককে পরিষ্কার রাখে। এছাড়াও এটি ত্বককে ময়শ্চারাইজ করতে সহায়তা করে। ব্রণ দূর করতেও সহায়তা করে। যা যা লাগবে ১ টেবিল চামচ গাজরের রস ১ চা চামচ সি সল্ট একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) একটি পাত্রে গাজরের রস এবং সি সল্ট নিয়ে ভালভাবে মেশান। খ) কটন প্যাড ব্যবহার করে আক্রান্ত জায়গায় মিশ্রণটি লাগান। গ) কিছুক্ষণ বৃত্তাকার গতিতে আলতো করে মুখ ম্যাসাজ করুন। ঘ) পুরোপুরি শুকিয়ে না যাওয়া পর্যন্ত এটি আপনার মুখে রেখে দিন। ঙ) এরপর হালকা গরম জলে ধুয়ে ফেলুন। চ) একদিন ছাড়া এই প্রতিকারটি ব্যবহার করুন। ৩) গাজরের জুস এবং অলিভ অয়েল অলিভ অয়েলে এসেনশিয়াল ফ্যাটি অ্যাসিড এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা ত্বককে সতেজ করে। এছাড়াও, এই তেল ত্বককে ময়েশ্চরাইজ করে এবং পুষ্টি যোগায়। যা যা লাগবে ২ টেবিল চামচ গাজরের জুস ১ চা চামচ অলিভ অয়েল একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) একটি বাটিতে দু’টি উপাদান ভালভাবে মিশিয়ে নিন। খ) এরপর কটন প্যাড ব্যবহার করে আক্রান্ত স্থানে মিশ্রণটি প্রয়োগ করুন। গ) ১৫ মিনিট রেখে তারপরে ভালভাবে ধুয়ে ফেলুন। ঘ) এই প্রতিকারটি সপ্তাহে একবার করুন। ত্বকের উজ্জ্বলতা ফেরাতে ব্যবহার করুন লাউয়ের খোসা, দেখুন পদ্ধতি ৪) গাজরের জুস এবং মুলতানি মাটি মুখে ব্রণ হওয়ার অন্যতম কারণ হল তৈলাক্ত ত্বক। অতিরিক্ত তেল ত্বকের ছিদ্রকে আটকে দেয়, যার ফলে সমস্যা হয়। মুলতানি মাটি ত্বকের জন্য অত্যন্ত উপকারি তা আমরা সকলেই জানি। এটি কেবলমাত্র ত্বক থেকে তেল এবং ময়লা শোষণ করে না, পাশাপাশি ত্বকের অয়েল কন্ট্রোল করে নানার সমস্যা, যেমন – ব্ল্যাকহেডস, হোয়াইটহেডস, দাগ এবং ব্রণ কমাতে সহায়তা করে। যা যা লাগবে একটি গাজর পরিমাণমতো মুলতানি মাটি ব্যবহারের পদ্ধতি ক) গাজর থেকে রস বের করে তাতে মুলতানি মাটির গুঁড়ো দিয়ে ভালভাবে মেশান। খ) এবার এই পেস্টটি আপনার মুখে লাগান। গ) ১৫ মিনিট রেখে দিন। ঘ) হালকা গরম জল দিয়ে ভালভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ঙ) কাঙ্ক্ষিত ফলাফলের জন্য এই প্রতিকারটি সপ্তাহে একবার করতে পারেন।

Source link

carrot juice for acne : মুখে ব্রণ নিয়ে চিন্তিত? গাজরের জুসেই হবে সমস্যার সমাধান!


১) গাজরের জুসের মাস্ক ত্বককে রক্ষা করতে এবং ব্রণ দূর করতে আপনি গাজরের রস সরাসরি আপনার মুখে লাগাতে পারেন। যা যা লাগবে ২ টেবিল চামচ ফ্রেশ গাজরের জুস একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) প্রথমে ক্লিনজার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে শুকিয়ে নিন। খ) এরপর গাজরের রসে কটন প্যাড ভালভাবে ডুবিয়ে এটি গোটা মুখে লাগান। গ) পুরোপুরি না শুকোনো পর্যন্ত মুখে রেখে দিন। ঘ) তারপর ভালভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ঙ) কাঙ্ক্ষিত ফলাফলের জন্য প্রতিদিন এই প্রতিকারটি করুন। ২) গাজরের জুস এবং সি সল্ট সি সল্টে অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া দূর করে এবং ত্বককে পরিষ্কার রাখে। এছাড়াও এটি ত্বককে ময়শ্চারাইজ করতে সহায়তা করে। ব্রণ দূর করতেও সহায়তা করে। যা যা লাগবে ১ টেবিল চামচ গাজরের রস ১ চা চামচ সি সল্ট একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) একটি পাত্রে গাজরের রস এবং সি সল্ট নিয়ে ভালভাবে মেশান। খ) কটন প্যাড ব্যবহার করে আক্রান্ত জায়গায় মিশ্রণটি লাগান। গ) কিছুক্ষণ বৃত্তাকার গতিতে আলতো করে মুখ ম্যাসাজ করুন। ঘ) পুরোপুরি শুকিয়ে না যাওয়া পর্যন্ত এটি আপনার মুখে রেখে দিন। ঙ) এরপর হালকা গরম জলে ধুয়ে ফেলুন। চ) একদিন ছাড়া এই প্রতিকারটি ব্যবহার করুন। ৩) গাজরের জুস এবং অলিভ অয়েল অলিভ অয়েলে এসেনশিয়াল ফ্যাটি অ্যাসিড এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা ত্বককে সতেজ করে। এছাড়াও, এই তেল ত্বককে ময়েশ্চরাইজ করে এবং পুষ্টি যোগায়। যা যা লাগবে ২ টেবিল চামচ গাজরের জুস ১ চা চামচ অলিভ অয়েল একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) একটি বাটিতে দু’টি উপাদান ভালভাবে মিশিয়ে নিন। খ) এরপর কটন প্যাড ব্যবহার করে আক্রান্ত স্থানে মিশ্রণটি প্রয়োগ করুন। গ) ১৫ মিনিট রেখে তারপরে ভালভাবে ধুয়ে ফেলুন। ঘ) এই প্রতিকারটি সপ্তাহে একবার করুন। ত্বকের উজ্জ্বলতা ফেরাতে ব্যবহার করুন লাউয়ের খোসা, দেখুন পদ্ধতি ৪) গাজরের জুস এবং মুলতানি মাটি মুখে ব্রণ হওয়ার অন্যতম কারণ হল তৈলাক্ত ত্বক। অতিরিক্ত তেল ত্বকের ছিদ্রকে আটকে দেয়, যার ফলে সমস্যা হয়। মুলতানি মাটি ত্বকের জন্য অত্যন্ত উপকারি তা আমরা সকলেই জানি। এটি কেবলমাত্র ত্বক থেকে তেল এবং ময়লা শোষণ করে না, পাশাপাশি ত্বকের অয়েল কন্ট্রোল করে নানার সমস্যা, যেমন – ব্ল্যাকহেডস, হোয়াইটহেডস, দাগ এবং ব্রণ কমাতে সহায়তা করে। যা যা লাগবে একটি গাজর পরিমাণমতো মুলতানি মাটি ব্যবহারের পদ্ধতি ক) গাজর থেকে রস বের করে তাতে মুলতানি মাটির গুঁড়ো দিয়ে ভালভাবে মেশান। খ) এবার এই পেস্টটি আপনার মুখে লাগান। গ) ১৫ মিনিট রেখে দিন। ঘ) হালকা গরম জল দিয়ে ভালভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ঙ) কাঙ্ক্ষিত ফলাফলের জন্য এই প্রতিকারটি সপ্তাহে একবার করতে পারেন।

Source link

carrot juice for acne : মুখে ব্রণ নিয়ে চিন্তিত? গাজরের জুসেই হবে সমস্যার সমাধান!


১) গাজরের জুসের মাস্ক ত্বককে রক্ষা করতে এবং ব্রণ দূর করতে আপনি গাজরের রস সরাসরি আপনার মুখে লাগাতে পারেন। যা যা লাগবে ২ টেবিল চামচ ফ্রেশ গাজরের জুস একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) প্রথমে ক্লিনজার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে শুকিয়ে নিন। খ) এরপর গাজরের রসে কটন প্যাড ভালভাবে ডুবিয়ে এটি গোটা মুখে লাগান। গ) পুরোপুরি না শুকোনো পর্যন্ত মুখে রেখে দিন। ঘ) তারপর ভালভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ঙ) কাঙ্ক্ষিত ফলাফলের জন্য প্রতিদিন এই প্রতিকারটি করুন। ২) গাজরের জুস এবং সি সল্ট সি সল্টে অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া দূর করে এবং ত্বককে পরিষ্কার রাখে। এছাড়াও এটি ত্বককে ময়শ্চারাইজ করতে সহায়তা করে। ব্রণ দূর করতেও সহায়তা করে। যা যা লাগবে ১ টেবিল চামচ গাজরের রস ১ চা চামচ সি সল্ট একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) একটি পাত্রে গাজরের রস এবং সি সল্ট নিয়ে ভালভাবে মেশান। খ) কটন প্যাড ব্যবহার করে আক্রান্ত জায়গায় মিশ্রণটি লাগান। গ) কিছুক্ষণ বৃত্তাকার গতিতে আলতো করে মুখ ম্যাসাজ করুন। ঘ) পুরোপুরি শুকিয়ে না যাওয়া পর্যন্ত এটি আপনার মুখে রেখে দিন। ঙ) এরপর হালকা গরম জলে ধুয়ে ফেলুন। চ) একদিন ছাড়া এই প্রতিকারটি ব্যবহার করুন। ৩) গাজরের জুস এবং অলিভ অয়েল অলিভ অয়েলে এসেনশিয়াল ফ্যাটি অ্যাসিড এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা ত্বককে সতেজ করে। এছাড়াও, এই তেল ত্বককে ময়েশ্চরাইজ করে এবং পুষ্টি যোগায়। যা যা লাগবে ২ টেবিল চামচ গাজরের জুস ১ চা চামচ অলিভ অয়েল একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) একটি বাটিতে দু’টি উপাদান ভালভাবে মিশিয়ে নিন। খ) এরপর কটন প্যাড ব্যবহার করে আক্রান্ত স্থানে মিশ্রণটি প্রয়োগ করুন। গ) ১৫ মিনিট রেখে তারপরে ভালভাবে ধুয়ে ফেলুন। ঘ) এই প্রতিকারটি সপ্তাহে একবার করুন। ত্বকের উজ্জ্বলতা ফেরাতে ব্যবহার করুন লাউয়ের খোসা, দেখুন পদ্ধতি ৪) গাজরের জুস এবং মুলতানি মাটি মুখে ব্রণ হওয়ার অন্যতম কারণ হল তৈলাক্ত ত্বক। অতিরিক্ত তেল ত্বকের ছিদ্রকে আটকে দেয়, যার ফলে সমস্যা হয়। মুলতানি মাটি ত্বকের জন্য অত্যন্ত উপকারি তা আমরা সকলেই জানি। এটি কেবলমাত্র ত্বক থেকে তেল এবং ময়লা শোষণ করে না, পাশাপাশি ত্বকের অয়েল কন্ট্রোল করে নানার সমস্যা, যেমন – ব্ল্যাকহেডস, হোয়াইটহেডস, দাগ এবং ব্রণ কমাতে সহায়তা করে। যা যা লাগবে একটি গাজর পরিমাণমতো মুলতানি মাটি ব্যবহারের পদ্ধতি ক) গাজর থেকে রস বের করে তাতে মুলতানি মাটির গুঁড়ো দিয়ে ভালভাবে মেশান। খ) এবার এই পেস্টটি আপনার মুখে লাগান। গ) ১৫ মিনিট রেখে দিন। ঘ) হালকা গরম জল দিয়ে ভালভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ঙ) কাঙ্ক্ষিত ফলাফলের জন্য এই প্রতিকারটি সপ্তাহে একবার করতে পারেন।

Source link

carrot juice for acne : মুখে ব্রণ নিয়ে চিন্তিত? গাজরের জুসেই হবে সমস্যার সমাধান!


১) গাজরের জুসের মাস্ক ত্বককে রক্ষা করতে এবং ব্রণ দূর করতে আপনি গাজরের রস সরাসরি আপনার মুখে লাগাতে পারেন। যা যা লাগবে ২ টেবিল চামচ ফ্রেশ গাজরের জুস একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) প্রথমে ক্লিনজার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে শুকিয়ে নিন। খ) এরপর গাজরের রসে কটন প্যাড ভালভাবে ডুবিয়ে এটি গোটা মুখে লাগান। গ) পুরোপুরি না শুকোনো পর্যন্ত মুখে রেখে দিন। ঘ) তারপর ভালভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ঙ) কাঙ্ক্ষিত ফলাফলের জন্য প্রতিদিন এই প্রতিকারটি করুন। ২) গাজরের জুস এবং সি সল্ট সি সল্টে অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া দূর করে এবং ত্বককে পরিষ্কার রাখে। এছাড়াও এটি ত্বককে ময়শ্চারাইজ করতে সহায়তা করে। ব্রণ দূর করতেও সহায়তা করে। যা যা লাগবে ১ টেবিল চামচ গাজরের রস ১ চা চামচ সি সল্ট একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) একটি পাত্রে গাজরের রস এবং সি সল্ট নিয়ে ভালভাবে মেশান। খ) কটন প্যাড ব্যবহার করে আক্রান্ত জায়গায় মিশ্রণটি লাগান। গ) কিছুক্ষণ বৃত্তাকার গতিতে আলতো করে মুখ ম্যাসাজ করুন। ঘ) পুরোপুরি শুকিয়ে না যাওয়া পর্যন্ত এটি আপনার মুখে রেখে দিন। ঙ) এরপর হালকা গরম জলে ধুয়ে ফেলুন। চ) একদিন ছাড়া এই প্রতিকারটি ব্যবহার করুন। ৩) গাজরের জুস এবং অলিভ অয়েল অলিভ অয়েলে এসেনশিয়াল ফ্যাটি অ্যাসিড এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা ত্বককে সতেজ করে। এছাড়াও, এই তেল ত্বককে ময়েশ্চরাইজ করে এবং পুষ্টি যোগায়। যা যা লাগবে ২ টেবিল চামচ গাজরের জুস ১ চা চামচ অলিভ অয়েল একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) একটি বাটিতে দু’টি উপাদান ভালভাবে মিশিয়ে নিন। খ) এরপর কটন প্যাড ব্যবহার করে আক্রান্ত স্থানে মিশ্রণটি প্রয়োগ করুন। গ) ১৫ মিনিট রেখে তারপরে ভালভাবে ধুয়ে ফেলুন। ঘ) এই প্রতিকারটি সপ্তাহে একবার করুন। ত্বকের উজ্জ্বলতা ফেরাতে ব্যবহার করুন লাউয়ের খোসা, দেখুন পদ্ধতি ৪) গাজরের জুস এবং মুলতানি মাটি মুখে ব্রণ হওয়ার অন্যতম কারণ হল তৈলাক্ত ত্বক। অতিরিক্ত তেল ত্বকের ছিদ্রকে আটকে দেয়, যার ফলে সমস্যা হয়। মুলতানি মাটি ত্বকের জন্য অত্যন্ত উপকারি তা আমরা সকলেই জানি। এটি কেবলমাত্র ত্বক থেকে তেল এবং ময়লা শোষণ করে না, পাশাপাশি ত্বকের অয়েল কন্ট্রোল করে নানার সমস্যা, যেমন – ব্ল্যাকহেডস, হোয়াইটহেডস, দাগ এবং ব্রণ কমাতে সহায়তা করে। যা যা লাগবে একটি গাজর পরিমাণমতো মুলতানি মাটি ব্যবহারের পদ্ধতি ক) গাজর থেকে রস বের করে তাতে মুলতানি মাটির গুঁড়ো দিয়ে ভালভাবে মেশান। খ) এবার এই পেস্টটি আপনার মুখে লাগান। গ) ১৫ মিনিট রেখে দিন। ঘ) হালকা গরম জল দিয়ে ভালভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ঙ) কাঙ্ক্ষিত ফলাফলের জন্য এই প্রতিকারটি সপ্তাহে একবার করতে পারেন।

Source link

carrot juice for acne : মুখে ব্রণ নিয়ে চিন্তিত? গাজরের জুসেই হবে সমস্যার সমাধান!


১) গাজরের জুসের মাস্ক ত্বককে রক্ষা করতে এবং ব্রণ দূর করতে আপনি গাজরের রস সরাসরি আপনার মুখে লাগাতে পারেন। যা যা লাগবে ২ টেবিল চামচ ফ্রেশ গাজরের জুস একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) প্রথমে ক্লিনজার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে শুকিয়ে নিন। খ) এরপর গাজরের রসে কটন প্যাড ভালভাবে ডুবিয়ে এটি গোটা মুখে লাগান। গ) পুরোপুরি না শুকোনো পর্যন্ত মুখে রেখে দিন। ঘ) তারপর ভালভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ঙ) কাঙ্ক্ষিত ফলাফলের জন্য প্রতিদিন এই প্রতিকারটি করুন। ২) গাজরের জুস এবং সি সল্ট সি সল্টে অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া দূর করে এবং ত্বককে পরিষ্কার রাখে। এছাড়াও এটি ত্বককে ময়শ্চারাইজ করতে সহায়তা করে। ব্রণ দূর করতেও সহায়তা করে। যা যা লাগবে ১ টেবিল চামচ গাজরের রস ১ চা চামচ সি সল্ট একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) একটি পাত্রে গাজরের রস এবং সি সল্ট নিয়ে ভালভাবে মেশান। খ) কটন প্যাড ব্যবহার করে আক্রান্ত জায়গায় মিশ্রণটি লাগান। গ) কিছুক্ষণ বৃত্তাকার গতিতে আলতো করে মুখ ম্যাসাজ করুন। ঘ) পুরোপুরি শুকিয়ে না যাওয়া পর্যন্ত এটি আপনার মুখে রেখে দিন। ঙ) এরপর হালকা গরম জলে ধুয়ে ফেলুন। চ) একদিন ছাড়া এই প্রতিকারটি ব্যবহার করুন। ৩) গাজরের জুস এবং অলিভ অয়েল অলিভ অয়েলে এসেনশিয়াল ফ্যাটি অ্যাসিড এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা ত্বককে সতেজ করে। এছাড়াও, এই তেল ত্বককে ময়েশ্চরাইজ করে এবং পুষ্টি যোগায়। যা যা লাগবে ২ টেবিল চামচ গাজরের জুস ১ চা চামচ অলিভ অয়েল একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) একটি বাটিতে দু’টি উপাদান ভালভাবে মিশিয়ে নিন। খ) এরপর কটন প্যাড ব্যবহার করে আক্রান্ত স্থানে মিশ্রণটি প্রয়োগ করুন। গ) ১৫ মিনিট রেখে তারপরে ভালভাবে ধুয়ে ফেলুন। ঘ) এই প্রতিকারটি সপ্তাহে একবার করুন। ত্বকের উজ্জ্বলতা ফেরাতে ব্যবহার করুন লাউয়ের খোসা, দেখুন পদ্ধতি ৪) গাজরের জুস এবং মুলতানি মাটি মুখে ব্রণ হওয়ার অন্যতম কারণ হল তৈলাক্ত ত্বক। অতিরিক্ত তেল ত্বকের ছিদ্রকে আটকে দেয়, যার ফলে সমস্যা হয়। মুলতানি মাটি ত্বকের জন্য অত্যন্ত উপকারি তা আমরা সকলেই জানি। এটি কেবলমাত্র ত্বক থেকে তেল এবং ময়লা শোষণ করে না, পাশাপাশি ত্বকের অয়েল কন্ট্রোল করে নানার সমস্যা, যেমন – ব্ল্যাকহেডস, হোয়াইটহেডস, দাগ এবং ব্রণ কমাতে সহায়তা করে। যা যা লাগবে একটি গাজর পরিমাণমতো মুলতানি মাটি ব্যবহারের পদ্ধতি ক) গাজর থেকে রস বের করে তাতে মুলতানি মাটির গুঁড়ো দিয়ে ভালভাবে মেশান। খ) এবার এই পেস্টটি আপনার মুখে লাগান। গ) ১৫ মিনিট রেখে দিন। ঘ) হালকা গরম জল দিয়ে ভালভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ঙ) কাঙ্ক্ষিত ফলাফলের জন্য এই প্রতিকারটি সপ্তাহে একবার করতে পারেন।

Source link

carrot juice for acne : মুখে ব্রণ নিয়ে চিন্তিত? গাজরের জুসেই হবে সমস্যার সমাধান!


১) গাজরের জুসের মাস্ক ত্বককে রক্ষা করতে এবং ব্রণ দূর করতে আপনি গাজরের রস সরাসরি আপনার মুখে লাগাতে পারেন। যা যা লাগবে ২ টেবিল চামচ ফ্রেশ গাজরের জুস একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) প্রথমে ক্লিনজার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে শুকিয়ে নিন। খ) এরপর গাজরের রসে কটন প্যাড ভালভাবে ডুবিয়ে এটি গোটা মুখে লাগান। গ) পুরোপুরি না শুকোনো পর্যন্ত মুখে রেখে দিন। ঘ) তারপর ভালভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ঙ) কাঙ্ক্ষিত ফলাফলের জন্য প্রতিদিন এই প্রতিকারটি করুন। ২) গাজরের জুস এবং সি সল্ট সি সল্টে অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া দূর করে এবং ত্বককে পরিষ্কার রাখে। এছাড়াও এটি ত্বককে ময়শ্চারাইজ করতে সহায়তা করে। ব্রণ দূর করতেও সহায়তা করে। যা যা লাগবে ১ টেবিল চামচ গাজরের রস ১ চা চামচ সি সল্ট একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) একটি পাত্রে গাজরের রস এবং সি সল্ট নিয়ে ভালভাবে মেশান। খ) কটন প্যাড ব্যবহার করে আক্রান্ত জায়গায় মিশ্রণটি লাগান। গ) কিছুক্ষণ বৃত্তাকার গতিতে আলতো করে মুখ ম্যাসাজ করুন। ঘ) পুরোপুরি শুকিয়ে না যাওয়া পর্যন্ত এটি আপনার মুখে রেখে দিন। ঙ) এরপর হালকা গরম জলে ধুয়ে ফেলুন। চ) একদিন ছাড়া এই প্রতিকারটি ব্যবহার করুন। ৩) গাজরের জুস এবং অলিভ অয়েল অলিভ অয়েলে এসেনশিয়াল ফ্যাটি অ্যাসিড এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা ত্বককে সতেজ করে। এছাড়াও, এই তেল ত্বককে ময়েশ্চরাইজ করে এবং পুষ্টি যোগায়। যা যা লাগবে ২ টেবিল চামচ গাজরের জুস ১ চা চামচ অলিভ অয়েল একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) একটি বাটিতে দু’টি উপাদান ভালভাবে মিশিয়ে নিন। খ) এরপর কটন প্যাড ব্যবহার করে আক্রান্ত স্থানে মিশ্রণটি প্রয়োগ করুন। গ) ১৫ মিনিট রেখে তারপরে ভালভাবে ধুয়ে ফেলুন। ঘ) এই প্রতিকারটি সপ্তাহে একবার করুন। ত্বকের উজ্জ্বলতা ফেরাতে ব্যবহার করুন লাউয়ের খোসা, দেখুন পদ্ধতি ৪) গাজরের জুস এবং মুলতানি মাটি মুখে ব্রণ হওয়ার অন্যতম কারণ হল তৈলাক্ত ত্বক। অতিরিক্ত তেল ত্বকের ছিদ্রকে আটকে দেয়, যার ফলে সমস্যা হয়। মুলতানি মাটি ত্বকের জন্য অত্যন্ত উপকারি তা আমরা সকলেই জানি। এটি কেবলমাত্র ত্বক থেকে তেল এবং ময়লা শোষণ করে না, পাশাপাশি ত্বকের অয়েল কন্ট্রোল করে নানার সমস্যা, যেমন – ব্ল্যাকহেডস, হোয়াইটহেডস, দাগ এবং ব্রণ কমাতে সহায়তা করে। যা যা লাগবে একটি গাজর পরিমাণমতো মুলতানি মাটি ব্যবহারের পদ্ধতি ক) গাজর থেকে রস বের করে তাতে মুলতানি মাটির গুঁড়ো দিয়ে ভালভাবে মেশান। খ) এবার এই পেস্টটি আপনার মুখে লাগান। গ) ১৫ মিনিট রেখে দিন। ঘ) হালকা গরম জল দিয়ে ভালভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ঙ) কাঙ্ক্ষিত ফলাফলের জন্য এই প্রতিকারটি সপ্তাহে একবার করতে পারেন।

Source link

carrot juice for acne : মুখে ব্রণ নিয়ে চিন্তিত? গাজরের জুসেই হবে সমস্যার সমাধান!


১) গাজরের জুসের মাস্ক ত্বককে রক্ষা করতে এবং ব্রণ দূর করতে আপনি গাজরের রস সরাসরি আপনার মুখে লাগাতে পারেন। যা যা লাগবে ২ টেবিল চামচ ফ্রেশ গাজরের জুস একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) প্রথমে ক্লিনজার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে শুকিয়ে নিন। খ) এরপর গাজরের রসে কটন প্যাড ভালভাবে ডুবিয়ে এটি গোটা মুখে লাগান। গ) পুরোপুরি না শুকোনো পর্যন্ত মুখে রেখে দিন। ঘ) তারপর ভালভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ঙ) কাঙ্ক্ষিত ফলাফলের জন্য প্রতিদিন এই প্রতিকারটি করুন। ২) গাজরের জুস এবং সি সল্ট সি সল্টে অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া দূর করে এবং ত্বককে পরিষ্কার রাখে। এছাড়াও এটি ত্বককে ময়শ্চারাইজ করতে সহায়তা করে। ব্রণ দূর করতেও সহায়তা করে। যা যা লাগবে ১ টেবিল চামচ গাজরের রস ১ চা চামচ সি সল্ট একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) একটি পাত্রে গাজরের রস এবং সি সল্ট নিয়ে ভালভাবে মেশান। খ) কটন প্যাড ব্যবহার করে আক্রান্ত জায়গায় মিশ্রণটি লাগান। গ) কিছুক্ষণ বৃত্তাকার গতিতে আলতো করে মুখ ম্যাসাজ করুন। ঘ) পুরোপুরি শুকিয়ে না যাওয়া পর্যন্ত এটি আপনার মুখে রেখে দিন। ঙ) এরপর হালকা গরম জলে ধুয়ে ফেলুন। চ) একদিন ছাড়া এই প্রতিকারটি ব্যবহার করুন। ৩) গাজরের জুস এবং অলিভ অয়েল অলিভ অয়েলে এসেনশিয়াল ফ্যাটি অ্যাসিড এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা ত্বককে সতেজ করে। এছাড়াও, এই তেল ত্বককে ময়েশ্চরাইজ করে এবং পুষ্টি যোগায়। যা যা লাগবে ২ টেবিল চামচ গাজরের জুস ১ চা চামচ অলিভ অয়েল একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) একটি বাটিতে দু’টি উপাদান ভালভাবে মিশিয়ে নিন। খ) এরপর কটন প্যাড ব্যবহার করে আক্রান্ত স্থানে মিশ্রণটি প্রয়োগ করুন। গ) ১৫ মিনিট রেখে তারপরে ভালভাবে ধুয়ে ফেলুন। ঘ) এই প্রতিকারটি সপ্তাহে একবার করুন। ত্বকের উজ্জ্বলতা ফেরাতে ব্যবহার করুন লাউয়ের খোসা, দেখুন পদ্ধতি ৪) গাজরের জুস এবং মুলতানি মাটি মুখে ব্রণ হওয়ার অন্যতম কারণ হল তৈলাক্ত ত্বক। অতিরিক্ত তেল ত্বকের ছিদ্রকে আটকে দেয়, যার ফলে সমস্যা হয়। মুলতানি মাটি ত্বকের জন্য অত্যন্ত উপকারি তা আমরা সকলেই জানি। এটি কেবলমাত্র ত্বক থেকে তেল এবং ময়লা শোষণ করে না, পাশাপাশি ত্বকের অয়েল কন্ট্রোল করে নানার সমস্যা, যেমন – ব্ল্যাকহেডস, হোয়াইটহেডস, দাগ এবং ব্রণ কমাতে সহায়তা করে। যা যা লাগবে একটি গাজর পরিমাণমতো মুলতানি মাটি ব্যবহারের পদ্ধতি ক) গাজর থেকে রস বের করে তাতে মুলতানি মাটির গুঁড়ো দিয়ে ভালভাবে মেশান। খ) এবার এই পেস্টটি আপনার মুখে লাগান। গ) ১৫ মিনিট রেখে দিন। ঘ) হালকা গরম জল দিয়ে ভালভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ঙ) কাঙ্ক্ষিত ফলাফলের জন্য এই প্রতিকারটি সপ্তাহে একবার করতে পারেন।

Source link

carrot juice for acne : মুখে ব্রণ নিয়ে চিন্তিত? গাজরের জুসেই হবে সমস্যার সমাধান!


১) গাজরের জুসের মাস্ক ত্বককে রক্ষা করতে এবং ব্রণ দূর করতে আপনি গাজরের রস সরাসরি আপনার মুখে লাগাতে পারেন। যা যা লাগবে ২ টেবিল চামচ ফ্রেশ গাজরের জুস একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) প্রথমে ক্লিনজার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে শুকিয়ে নিন। খ) এরপর গাজরের রসে কটন প্যাড ভালভাবে ডুবিয়ে এটি গোটা মুখে লাগান। গ) পুরোপুরি না শুকোনো পর্যন্ত মুখে রেখে দিন। ঘ) তারপর ভালভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ঙ) কাঙ্ক্ষিত ফলাফলের জন্য প্রতিদিন এই প্রতিকারটি করুন। ২) গাজরের জুস এবং সি সল্ট সি সল্টে অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া দূর করে এবং ত্বককে পরিষ্কার রাখে। এছাড়াও এটি ত্বককে ময়শ্চারাইজ করতে সহায়তা করে। ব্রণ দূর করতেও সহায়তা করে। যা যা লাগবে ১ টেবিল চামচ গাজরের রস ১ চা চামচ সি সল্ট একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) একটি পাত্রে গাজরের রস এবং সি সল্ট নিয়ে ভালভাবে মেশান। খ) কটন প্যাড ব্যবহার করে আক্রান্ত জায়গায় মিশ্রণটি লাগান। গ) কিছুক্ষণ বৃত্তাকার গতিতে আলতো করে মুখ ম্যাসাজ করুন। ঘ) পুরোপুরি শুকিয়ে না যাওয়া পর্যন্ত এটি আপনার মুখে রেখে দিন। ঙ) এরপর হালকা গরম জলে ধুয়ে ফেলুন। চ) একদিন ছাড়া এই প্রতিকারটি ব্যবহার করুন। ৩) গাজরের জুস এবং অলিভ অয়েল অলিভ অয়েলে এসেনশিয়াল ফ্যাটি অ্যাসিড এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা ত্বককে সতেজ করে। এছাড়াও, এই তেল ত্বককে ময়েশ্চরাইজ করে এবং পুষ্টি যোগায়। যা যা লাগবে ২ টেবিল চামচ গাজরের জুস ১ চা চামচ অলিভ অয়েল একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) একটি বাটিতে দু’টি উপাদান ভালভাবে মিশিয়ে নিন। খ) এরপর কটন প্যাড ব্যবহার করে আক্রান্ত স্থানে মিশ্রণটি প্রয়োগ করুন। গ) ১৫ মিনিট রেখে তারপরে ভালভাবে ধুয়ে ফেলুন। ঘ) এই প্রতিকারটি সপ্তাহে একবার করুন। ত্বকের উজ্জ্বলতা ফেরাতে ব্যবহার করুন লাউয়ের খোসা, দেখুন পদ্ধতি ৪) গাজরের জুস এবং মুলতানি মাটি মুখে ব্রণ হওয়ার অন্যতম কারণ হল তৈলাক্ত ত্বক। অতিরিক্ত তেল ত্বকের ছিদ্রকে আটকে দেয়, যার ফলে সমস্যা হয়। মুলতানি মাটি ত্বকের জন্য অত্যন্ত উপকারি তা আমরা সকলেই জানি। এটি কেবলমাত্র ত্বক থেকে তেল এবং ময়লা শোষণ করে না, পাশাপাশি ত্বকের অয়েল কন্ট্রোল করে নানার সমস্যা, যেমন – ব্ল্যাকহেডস, হোয়াইটহেডস, দাগ এবং ব্রণ কমাতে সহায়তা করে। যা যা লাগবে একটি গাজর পরিমাণমতো মুলতানি মাটি ব্যবহারের পদ্ধতি ক) গাজর থেকে রস বের করে তাতে মুলতানি মাটির গুঁড়ো দিয়ে ভালভাবে মেশান। খ) এবার এই পেস্টটি আপনার মুখে লাগান। গ) ১৫ মিনিট রেখে দিন। ঘ) হালকা গরম জল দিয়ে ভালভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ঙ) কাঙ্ক্ষিত ফলাফলের জন্য এই প্রতিকারটি সপ্তাহে একবার করতে পারেন।

Source link

carrot juice for acne : মুখে ব্রণ নিয়ে চিন্তিত? গাজরের জুসেই হবে সমস্যার সমাধান!


১) গাজরের জুসের মাস্ক ত্বককে রক্ষা করতে এবং ব্রণ দূর করতে আপনি গাজরের রস সরাসরি আপনার মুখে লাগাতে পারেন। যা যা লাগবে ২ টেবিল চামচ ফ্রেশ গাজরের জুস একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) প্রথমে ক্লিনজার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে শুকিয়ে নিন। খ) এরপর গাজরের রসে কটন প্যাড ভালভাবে ডুবিয়ে এটি গোটা মুখে লাগান। গ) পুরোপুরি না শুকোনো পর্যন্ত মুখে রেখে দিন। ঘ) তারপর ভালভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ঙ) কাঙ্ক্ষিত ফলাফলের জন্য প্রতিদিন এই প্রতিকারটি করুন। ২) গাজরের জুস এবং সি সল্ট সি সল্টে অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া দূর করে এবং ত্বককে পরিষ্কার রাখে। এছাড়াও এটি ত্বককে ময়শ্চারাইজ করতে সহায়তা করে। ব্রণ দূর করতেও সহায়তা করে। যা যা লাগবে ১ টেবিল চামচ গাজরের রস ১ চা চামচ সি সল্ট একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) একটি পাত্রে গাজরের রস এবং সি সল্ট নিয়ে ভালভাবে মেশান। খ) কটন প্যাড ব্যবহার করে আক্রান্ত জায়গায় মিশ্রণটি লাগান। গ) কিছুক্ষণ বৃত্তাকার গতিতে আলতো করে মুখ ম্যাসাজ করুন। ঘ) পুরোপুরি শুকিয়ে না যাওয়া পর্যন্ত এটি আপনার মুখে রেখে দিন। ঙ) এরপর হালকা গরম জলে ধুয়ে ফেলুন। চ) একদিন ছাড়া এই প্রতিকারটি ব্যবহার করুন। ৩) গাজরের জুস এবং অলিভ অয়েল অলিভ অয়েলে এসেনশিয়াল ফ্যাটি অ্যাসিড এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা ত্বককে সতেজ করে। এছাড়াও, এই তেল ত্বককে ময়েশ্চরাইজ করে এবং পুষ্টি যোগায়। যা যা লাগবে ২ টেবিল চামচ গাজরের জুস ১ চা চামচ অলিভ অয়েল একটি কটন প্যাড ব্যবহারের পদ্ধতি ক) একটি বাটিতে দু’টি উপাদান ভালভাবে মিশিয়ে নিন। খ) এরপর কটন প্যাড ব্যবহার করে আক্রান্ত স্থানে মিশ্রণটি প্রয়োগ করুন। গ) ১৫ মিনিট রেখে তারপরে ভালভাবে ধুয়ে ফেলুন। ঘ) এই প্রতিকারটি সপ্তাহে একবার করুন। ত্বকের উজ্জ্বলতা ফেরাতে ব্যবহার করুন লাউয়ের খোসা, দেখুন পদ্ধতি ৪) গাজরের জুস এবং মুলতানি মাটি মুখে ব্রণ হওয়ার অন্যতম কারণ হল তৈলাক্ত ত্বক। অতিরিক্ত তেল ত্বকের ছিদ্রকে আটকে দেয়, যার ফলে সমস্যা হয়। মুলতানি মাটি ত্বকের জন্য অত্যন্ত উপকারি তা আমরা সকলেই জানি। এটি কেবলমাত্র ত্বক থেকে তেল এবং ময়লা শোষণ করে না, পাশাপাশি ত্বকের অয়েল কন্ট্রোল করে নানার সমস্যা, যেমন – ব্ল্যাকহেডস, হোয়াইটহেডস, দাগ এবং ব্রণ কমাতে সহায়তা করে। যা যা লাগবে একটি গাজর পরিমাণমতো মুলতানি মাটি ব্যবহারের পদ্ধতি ক) গাজর থেকে রস বের করে তাতে মুলতানি মাটির গুঁড়ো দিয়ে ভালভাবে মেশান। খ) এবার এই পেস্টটি আপনার মুখে লাগান। গ) ১৫ মিনিট রেখে দিন। ঘ) হালকা গরম জল দিয়ে ভালভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ঙ) কাঙ্ক্ষিত ফলাফলের জন্য এই প্রতিকারটি সপ্তাহে একবার করতে পারেন।

Source link