Tag Archives: harmful

toilet habits: টয়লেটেও কি আপনি ফোন নিয়ে যান? নিজের কী কী ক্ষতি করছেন জানুন… – toilet habits that are harmful to health and give you infections

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: আপনি কি বাথরুমেও মোবাইল নিয়ে যান? উত্তর যদি হ্যাঁ হয়, তবে আজ থেকে আপনার অভ্যাসটি পরিবর্তন করুন। কারণ আপনার এই বদ অভ্যাস অনেক সংক্রামক রোগের শিকার করতে পারে। শুধু এটিই নয়, আপনাকে গুরুতর রোগ বাসা বাঁধতে পারে শরীরে। এমনটাই মত বিশেষজ্ঞদের।কয়েক বছর আগে মানুষ তাঁদের সময় বাঁচানোর জন্য বাথরুমে সংবাদপত্র বা ম্যাগাজিন পড়ত। তবে আজকাল স্মার্টফোন দু’জনের জায়গা করে নিয়েছে। এখন সবাই মোবাইল ফোন নিয়ে বাথরুমে ঘন্টা খানেক সময় কাটায়। ফেসবুক চেক করা, ইনস্টাগ্রামের ফিডগুলি দেখা, হোয়াটসঅ্যাপে চ্যাট করা, এমনকি সারা পৃথিবীর সংবাদ পড়ে ফলেন এই সময়ে। সত্যিই এই জিনিসটির প্রতি আসক্ত ব্যক্তিরা জানেন না যে, তাঁরা এটি করে নিজেরাই অসুখ-বিসুখকে আহ্বান করছেন। স্মার্টফোন কীভাবে টয়লেট থেকে রোগ বহন করে জেনে নিন…কীভাবে সংক্রামিত হতে পারে?বাড়ির সমস্ত জায়গার মধ্যে সর্বাধিক জীবাণু বাথরুমে পাওয়া যায়। এখানে ট্যাপ, হ্যান্ড ড্রায়ার, ডোর ল্যাচ হ’ল সর্বাধিক জীবাণু, যা আপনি কখনও দেখেননি। আপনি যখন আপনার সঙ্গে ফোন রাখেন, তখন আপনার ফোনটিতে ব্যাকটিরিয়ার সংস্পর্শে আসে। গবেষকেরা জানাচ্ছেন, টয়লেটের ভিজে পরিবেশে ব্যাকটিরিয়া দ্রুত বংশবৃদ্ধি করে। ঠিক ভাবে হাত না ধোওয়া বা টয়লেট ব্যবহারের সময় সেই জায়গায় মোবাইল রাখার ফলে তাতে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে সালমোনেল্লা, ই.কোলাই, সিগেল্লা এবং ক্যামফাইলোব্যাকটরের মতো ব্যাকটিরিয়া। ফোনের টাচস্ক্রিনে গ্যাসট্রো এবং স্ট্যাপের মত ক্ষতিকর ভাইরাস জন্মাতে পারে বলে মত বিশেষজ্ঞদের। টয়লেটে ব্যবহারের পর সেই ফোন আমরা বিছানায় বা খাবার জায়গায় রাখি এবং সেখানেও ব্যবহার করি। চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, মোবাইলে বাসা বাঁধা এই ক্ষতিকর ভাইরাস ও ব্যাকটিরিয়া খাবারের সঙ্গে লালায় মিশে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে শরীরে।টয়লেটের সিটের চেয়ে ১০ গুণ বেশি জীবাণু থাকে ফোনে বাথরুমে ফোন নিয়ে যাওয়া কতটা বিপজ্জনক হতে পারে তা আপনি ভাবতে পারেন না। অ্যারিজোনা বিশ্ববিদ্যালয়ের শাওয়ারদের একটি গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে, টয়লেট আসনের চেয়ে স্মার্টফোনে ১০ গুণ বেশি ব্যাকটিরিয়া থাকে। বাথরুম ব্যবহারের পর হাত ধুয়ে ফেলি, তবে স্মার্টফোনটি পরিষ্কার করতে ভুলে যাই। ফলস্বরূপ রোগজনিত জীবাণু এবং ব্যাকটেরিয়া তাদের সঙ্গে আটকে থাকে যা সহজেই সংক্রমণের কারণ হয়ে থাকে।বয়স বাড়লেই মেয়েদের এই ৬ রোগের ঝুঁকি বাড়ে! কোন কোন বিষয়ে সতর্ক থাকবেন? জানুন…মানসিক চাপ সৃষ্টি করতে পারেপ্রযুক্তিটি আমাদের জীবনকে কতটা সহজ করে তুলেছে তা নয়, তবে সর্বদা এর ব্যবহার আপনাকে মানসিক চাপ দেওয়ার একটি বড় কারণও বটে। এমনকি যদি আপনি বাথরুমেও ফোনটি ব্যবহার করতে থাকেন তবে স্ট্রেস এবং হতাশা থাকা স্বাভাবিক। বাথরুমে ফোনটি নিয়ে, আপনি আপনার মন এবং স্বাস্থ্য উভয়ই নিয়ে খেলছেন।বিকল্প কি হতে পারে?বাথরুমে পাওয়া জীবাণুতে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেশি। আপনি যদি বাথরুমে আপনার ফোন ব্যবহার করেন তবে আপনার নিরাপদ থাকা এবং স্বাস্থ্যকরতা বজায় রাখা আপনার পক্ষে খুব জরুরি। টয়লেটে যাওয়ার সময় সবচেয়ে ভালো বিকল্পটি ফোনটি বাইরে রেখে দেওয়া। যদি প্রয়োজন হয়, তবে এটি পরে অ্যালকোহল-ভিত্তিক স্যানিটাইজার দিয়ে ভালো করে পরিষ্কার করুন। এছাড়াও টয়লেটে খুব বেশি সময় ব্যয় না করার চেষ্টা করুন। টাটকা ভিডিয়ো খবর পেতে সাবস্ক্রাইব করুন এই সময় ডিজিটালের YouTube পেজে। সাবস্ক্রাইব করতে এখানে ক্লিক করুন।

Source link

Instant noodles: খিদের পেটে ইনস্ট্যান্ট নুডলস? স্বাদের আড়ালে লুকিয়ে থাকা ক্ষতিকর দিকগুলিও জানুন… – the dark side of instant noodles: what makes them harmful?

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: দিন যত যাচ্ছে, ঝটপট তৈরি করে নেওয়ার মতো খাবারের চাহিদা তত বাড়ছে। সময় আর শ্রম বাঁচাতে ‘ইনস্ট্যান্ট ফুডের’ দিকে ঝুঁকছে সবাই। এর মধ্যে নুডলস একটি। গরম জলে একটু সেদ্ধ করে ডিম আর তেল-মসলা দিয়ে দু-চার মিনিটে তৈরি করা যায় এ খাবার। সুস্বাদুও বটে। কিন্তু এই নুডলসের সঙ্গে ঝুঁকিটা যে কত বড়, তা কি কারোর খেয়াল আছে? ইনস্ট্যান্ট নুডলস ধাঁ করে রক্তে চিনি আর কোলেস্টেরোল মাত্রা বাড়িয়ে দেয়।এ ব্যাপারে একটি নিবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে। যার প্রতিবেদনে জানানো হয়, কোরিয়ান ন্যাশনাল হেলথ অ্যান্ড নিউট্রিশন এক্সামিনেশন সার্ভের তত্ত্বাবধানে একটি সমীক্ষা চালানো হয়। এতে ১০ হাজার ৭১১ জন পূর্ণবয়স্ক মানুষ অংশ নেন। তাতে দেখা যায় যারা সপ্তাহে দু’বারের বেশি ইনস্ট্যান্ট নুডলস খেয়েছেন, তাঁদের স্বাস্থ্যের অবস্থা শোচনীয়। তাঁদের বিপাকজনিত গুরুতর সমস্যা ‘মেটাবলিজম সিনড্রোমের’ ঝুঁকি ৬৮ শতাংশ বেড়ে গেছে। মেটাবলিজম সিনড্রোম এমন একটা সমস্যাজনিত অবস্থা, যা হৃদরোগ ও ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বাড়ায়। এর প্রভাবে কোমর ও পেটে মেদ জমে।ইনস্ট্যান্ট নুডলসে বেশি ক্ষতিচাউমিন তৈরির ক্ষেত্রে ময়দা দিয়ে তা বানানো হয়। নুডলস তৈরির ক্ষেত্রেও মূল উপাদান ময়দা হলেও তার সঙ্গে অ্যাডেটিভ বা কেমিক্যাল মেশানো হয়। যার মধ্যে অন্যতম হল হিউম্যাকটেন্ট (কেমিক্যাল)। ফলস্বরূপ ৫ মিনিটে নুডলস সেদ্ধ হয়ে যায়। আর কখনওই তা খুব সিদ্ধ হয়ে গলেও যায় না। সেদিক থেকে চাউমিন কিছুটা হলেও নিরাপদ।শরীরে প্রভাবচাউমিন হোক বা নুডলস, এগুলি বেশি খেলে হজমে তার প্রভাব পড়েই। কারণ, এর মূল উপাদান ময়দার বা রিফাইন কার্বোহাইড্রেট। তাই এতে ফাইবারের মাত্রা খুব কম থাকে। ফলে হজমশক্তিতে এর প্রভাব পড়ে। যা কোলনের জন্য মোটেই ভালো নয়। বেঁচে যাওয়া বাসি ভাত ফেলে না দিয়ে ঝটপট তৈরি করে ফেলুন মজাদার এসব পদ!হার্টের ক্ষতি করে ও ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বাড়ায়ময়দার তৈরি নুডলসে গ্লুটেন থাকে অনেক বেশি পরিমাণে। এতে ফ্যাটের মাত্রাও অনেক বেশি। কাজেই তা হার্টের ক্ষতি করে ও ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বাড়ায়। এতে কার্বোহাইড্রেটের মাত্রা বেশি থাকায় তা ওজন বাড়ায়। এই খাবারের প্রতি বেশি আসক্ত হলে ভিটামিন ডি ও বি ১২-এর অভাব দেখা দেয়। নুডলসে সোডিয়াম বা নুনের মাত্রা খুব বেশি থাকে। যা অত্যন্ত ক্ষতিকারক। কারণ আটা-ময়দা থেকে চাউমিন তৈরি করার ক্ষেত্রে অনেকসময়ই অতিরিক্ত সোডিয়াম বা নুন মেশানো হয়। ফলে উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা ডেকে আনে। যাঁদের নুন খাওয়া একেবারেই নিষেধ তাঁদের নুডলসেও নিয়ন্ত্রণ আনা দরকার।নুডলসে সোডিয়াম বা নুনের মাত্রা খুব বেশি থাকে। যা অত্যন্ত ক্ষতিকারক। কারণ আটা-ময়দা থেকে চাউমিন তৈরি করার ক্ষেত্রে অনেকসময়ই অতিরিক্ত সোডিয়াম বা নুন মেশানো হয়। ফলে উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা ডেকে আনে। যাঁদের নুন খাওয়া বারন থাকে তাঁদের চাউমিন বা নুডলসেও নিয়ন্ত্রণ আনা দরকার।এই সময় ডিজিটালের লাইফস্টাইল সংক্রান্ত সব আপডেট এখন টেলিগ্রামে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন এখানে।

Source link